পাবনায় আইনজীবীসহ দুই আসামিকে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৪৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৪৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
ছবিঃ সংগৃহিত

পাবনায় আদালত চত্বর থেকে আইনজীবীসহ দুই আসামিকে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দুপুরে পাবনার জজকোর্ট চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরে জেলা আইনজীবী সমিতি এবং পুলিশের তৎপরতায় দেড়টার দিকে অপহরণকারীরা তাদের ছেড়ে দেয়।

পাবনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাজ্জাদ ইকবাল লিটন জানান, সোমবার পাবনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলার চার্জ গঠনের দিন ধার্য ছিল। শুনানি শেষে বিচারক আসামি নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার ভরতপুর গ্রামের দুই ভাই আবু সাঈদ মোল্লা ও শহিদ মোল্লার জামিন মঞ্জুর করেন।

দুপুর ১২টার দিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী সাইদুর রহমান চৌধুরী দুই আসামিকে নিয়ে আদালত চত্বর থেকে বের হন। এ সময় মামলার বাদীর বাবা পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর গ্রামের আবদুল লতিফের নেতৃত্বে ৯-১০ জন সশস্ত্র যুবক তাদের তিনজনকে টেনেহিঁচড়ে মাইক্রোবাসে তোলে এবং আসামি সাঈদ ও শহিদকে রড দিয়ে পেটাতে থাকে।

আইনজীবী লিটন আরও জানান, অপহরণকারীরা তাদের অপহরণ করে সরাসরি পাবনা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সামনে নিয়ে যায়। পুলিশ পিছু নেওয়ায় অপহরণকারীরা আইনজীবী সাইদুর রহমান চৌধুরীকে ছেড়ে দেয় এবং ওই দুই আসামিকে মারতে থাকে। পরে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন দুই আসামিকে তাদের হাত থেকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। পরে সেখান থেকে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আইনজীবী সাইদুর রহমান চৌধুরী বলেন, আদালত থেকে বের হওয়ার পরই সন্ত্রাসীরা আমাকেসহ আমার দুই মক্কেলকে মাইক্রোবাসে তুলে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোশারফ হোসেনের অফিসে নিয়ে যায়। মাইক্রোবাসের মধ্যে সন্ত্রাসীরা আমার দুই মক্কেলকে রড দিয়ে মারধর করে। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান এসে আমাকে ছেড়ে দিতে বললে অপহরণকারীরা ছেড়ে দেয় এবং ওই দু’জনকে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।