পাল্টাপাল্টি ভাঙচুর আ.লীগ নেতার গাড়ি ও মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:১১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০১৮ | আপডেট: ৫:১১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০১৮

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় মোবাইল ফোন চুরির ঘটনায় এক মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ও আওয়ামী লীগ নেতার গাড়ি পাল্টাপাল্টি ভাঙচুর হয়েছে।

আজ রবিবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী ছোটকুড়িপাইকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের দুজন আহত হন।

ভাঙচুরের শিকার হয় মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান ও তার ছোট ভাই সফিকুর রহমান দেওয়ানের বাড়ি এবং আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যগ্ম আহ্বায়ক ও জেলা পরিষদ সদস্য আবুল কাশেম ভূঁইয়ার গাড়ি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ছোটকুড়িপাইকা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমানের ছেলে পুলিশ কনস্টেবল শাহিদুর রহমান পিন্টুর (২৫) সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় একই এলাকার বাসিন্দা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাশেম ভূঁইয়ার গাড়িচালক আহম্মদ মিয়ার (২৫)। কুমিল্লা পুলিশ লাইনে কর্মরত শাহিদ ঈদ উপলক্ষে ছুটি নিয়ে বাড়িতে অবস্থান করছেন।

জানা যায়, শাহিদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন চুরি করে নিয়ে যান গাড়িচালক বন্ধু আহম্মদ মিয়া। মোবাইল ফেরত চাওয়া নিয়ে বাগবিত-াকে কেন্দ্র করে আজ দুপুরে কাশেম ভূঁইয়ার গাড়িচালক আহম্মদকে মারধর ও গাড়ি ভাঙচুর করে মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমানের লোকজন।

এ ঘটনায় কাশেম ভূঁইয়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান ও তার ছোট ভাই সফিকুর রহমান দেওয়ানের বাড়িতে হামলা চালায়। ভাঙচুর করা ওই বাড়ির দরজা, জানালা।

হামলার সময় ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে আখাউড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। হামলার ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবল শাহিদ ও গাড়িচালক আহম্মদ আহত হন। তাদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম ভূঁইয়া বলেন, ভুল বোঝাবুঝি থেকে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি আপোষ-মীমাংসা করে দেয়ার কথাবার্তা চলছে।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশারফ হোসেন তরফদার বলেন, মোবাইল ফোন নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তবে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ নিয়ে এখনো কেউ অভিযোগ করেনি বলে জানান ওসি।