পুলিশের চোখে মরিচের গুঁড়ো দিয়ে পালাল ‘গুরু’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১৩:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮

টিবিটি সারাবিশ্বঃ পুলিশের চোখে মরিচের গুঁড়ো দিয়ে পালাল ‘গুরু। পুলিশের হাতে আটক ‘গুরু’কে আদালতে তোলা হয়েছে। এমন খবর পেয়ে আদালত চত্ত্বরে অবস্থান নিয়েছিল শিষ্যরা।

‘জামিন মিলবে’ এই আশায় ছিলেন গুরু-শিষ্য উভয়ই। কিন্তু বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। নির্দেশ মত এজলাস থেকে গুরু’কে প্রিজন ভ্যানে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ।

এমন সময় এক লংকা কাণ্ড ঘটিয়ে দিলেন গুরু! কোন রকমে পকেট থেকে হাত বের করেই পুলিশের চোখে ছুঁড়ে দিলেন মরিচের গুঁড়ো। ভো দৌড়ে পালিয়ে গিয়ে উঠে পড়লেন অপেক্ষামান শিষ্যদের গাড়িতে। শিষ্যরাও একটানে গুরু’কে নিয়ে লা-পাত্তা!

বৃহস্পতিবার ভারতের আলিপুর জেলা ও দায়রা আদালত চত্বর থেকে এভাবেই ফিল্ম স্টাইলে আসামি পলায়নের ঘটনা ঘটেছে। এক ডাকাতির ঘটনায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি শেখ রেজ্জাক তার শিষ্যদের সহায়তায় এভাবেই পালিয়ে গেছেন বলে খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের।

খবর অনুযায়ী, ডাকাত গুরু শেখ রেজ্জাকের বিরুদ্ধে ছিনতাই, চুরি, ডাকাতিসহ বহু অভিযোগ রয়েছে। যাদবপুরে একটি ডাকাতির ঘটনায় ২০১৫ সালে পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর তার স্থান হয়েছিল আলিপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে।

অনেক দিন আগেই রেজ্জাক পালানোর পরিকল্পনা করেছিল দাবি করে এক পুলিশ অফিসার বলেন, ‘পূর্ব প্ল্যান অনুযায়ী তার দল-বলের লোকজন গাড়ি নিয়ে অপেক্ষা করছিল।

মরিচের গুঁড়োও আগে থেকেই জোগাড় করে রেখেছিল সে। সব কিছুই তারা প্ল্যান মাফিক করেছে। মরিচের গুঁড়ো ছিটানোয় চোখ কচলাতে কচলাতে ছটফট করছিল পুলিশ। আর এই সুযোগে ওই আসামি পালিয়েছে।’

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তল্লাশির কথাও জানিয়েছে পুলিশ। তবে এখনো রেজ্জাকের কোন হদিস পাওয়া যায়নি। আসামি খোঁজের পাশাপাশি ঘটনার সময়ে উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালনে কোন অবহেলা করেছে কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ বিভাগ।