মসজিদে উশৃঙ্খল আচরণের প্রতিবাদ করায় সাংবাদিকে মারধরের অভিযোগ

তারেক পাঠান তারেক পাঠান

পলাশ(নরসিংদী) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:০৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০২১ | আপডেট: ৯:১৪:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০২১

নরসিংদীর পলাশে মসজিদে নামাজে অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করায় জাহিদুল ইসলাম জাহিদ নামে এক সাংবাদিককে মারধরে অভিযোগ উঠেছে মুঞ্জুর আলম ( ৫৫) ও তার দুই ছেলে সেতু (২৫), রেহান (২২) এর বিরুদ্ধে।

আজ ২৩ এপ্রিল শুক্রবার দুপুরে উপজেলার পলাশ শিল্পাঞ্চল কলেজ রোডে এই মারধরের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় বিকেলে মারধরের শিকার সাংবাদিক জাহিদুল ইসলাম পলাশ থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

জাহিদুল ইসলাম জাহিদ দৈনিক বাংলাদেশ বুলেটিনের পলাশ উপজেলা প্রতিনিধি ও পলাশ উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সিঃ সহ সভাপতি। ভুক্তভোগী সাংবাদিক জানায়, শিল্পাঞ্চল কলেজ মসজিদে জুম্মার নামাজ আগ মুহুর্তে খুদবা পাঠ কালীন সময় মুঞ্জুর আলম মসজিদে চেয়ারে বসে পায়ের উপর পা তোলে তা নাড়াচার করছিল। এ সময় নামাজের জন্য পাশে বসা সাংবাদিক জাহিদ তাকে পা নামাতে বললে মুঞ্জুর আলম তার উপর ক্ষিপ্ত হয়। পরে নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হয়ে মুঞ্জুর আলম, তার দুই ছেলে সেতু ও রেহান মিলে মুসল্লিদের সামনে প্রকাশ্যে কিলঘুষি মারতে থাকে।

এসময় বাধা দিতে গিয়ে কয়েজন মুসল্লিও তাদের মারধরের শিকার হয়। পরে আশেপাশের আরো মুসল্লি ছুটে আসলে এ সময় তারা পালিয়ে যায়। হামলার পর পুলিশ অভিযুক্ত মুঞ্জুর আলম ও রেহানকে আটক করে।

পলাশ থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ুক কবির জানায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী সাংবাদিকের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করেছে স্থানীয় সাংবাদিক সংগঠন গুলো। তারা দ্রুত দোষীদের শাস্তির দাবি জানান।