প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি কার্যক্রম পেছালো

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:১৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০২১ | আপডেট: ৮:১৭:অপরাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০২১

প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইন বদলি কার্যক্রম পিছিয়েছে। ৯ মার্চ মঙ্গলবার দুপুরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করার কথা থাকলেও কারিগরি কিছু ত্রুটি থাকায় তা পেছানো হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা অভ্যন্তরীণভাবে আলোচনা করেছি। যেহেতু সফটওয়্যার নতুন তাই অনেকে ব্যবহার করতে পারবে না। কারণ এখানে টাইম বাউন্ড একশন থাকবে। কোনো শিক্ষক যেনো বদলি থেকে বঞ্চিত না হয় সে কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সফটওয়্যার তৈরির কাজ শেষ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা একটা ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম শুরু করছি। পাইলট প্রকল্পের আওতায় ওই উপজেলায় কর্মরত শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মকর্তাদের এই ওরিয়েন্টশন প্রোগ্রামের মাধ্যমে ট্রেনিং কারানো হবে।

কবে থেকে অনলাইন বদলি কার্যক্রম শুরু হচ্ছে জানতে চাইলে ডিপিই মহাপরিচালক বলেন, আমরা ইতোমধ্যে দিকনির্দেশনা দিয়ে দিয়েছি। মাঠ পর্যায়ে দেখানোর জন্য ডেমো ভিডিও তৈরি হয়েছে। ট্রেনিং শেষ হওয়ার পর আমরা আগামী সপ্তাহে আশা করছি পাইলট প্রকল্পটি চালু করতে পারবো।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এটির উদ্বোধন করবেন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এরই মধ্যে শিক্ষকদের শূন্যপদ ঠিক আছে কি না তিনি কোথায় কর্মরত আছেন সে বিষয়ে এড্রেস করা হচ্ছে। কারণ শিক্ষকদের আইডি দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের যাবতীয় তথ্য স্ক্রিনে দেখা যাবে।

এর আগে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, শুরুতে ঢাকার পার্শ্ববর্তী দুটি উপজেলায় পাইলটিং হিসেবে ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু হবে। এতে কোনো ভুলত্রুটি হলে তা সংশোধন করে সব জেলায় একযোগে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু হবে।

তবে ডিপিইর মহাপরিচালক এ এম মনসুর আলম বলেন, দুটি উপজেলায় নয় একটি উপজেলাতেই পাইলটিং প্রকল্প শুরু হবে।

তিনি আরো বলেন, যেহেতু শিক্ষক বদলি কার্যক্রমে এটি একটি নতুন অভিজ্ঞতা, এজন্য পাইলটিং হিসেবে যেসব ভুলত্রুটি হবে তা দ্রুত সমাধান করা হবে। পাইলটিং কাজ সফল হলে দ্রুত সারাদেশে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু হবে।