প্রেমে নিষেধ করায় শিক্ষক দম্পতির ছেলের আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ৯:৪৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৫:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২০
সংগৃহীত

প্রেমে নিষেধ করার জন্য মা-বাবার ওপর অভিমান করে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে নাটোরের বাগাতিপাড়ায়। আত্মহত্যা করা ওই কলেজছাত্রের নাম খালিদ হাসান জিম।

গত শুক্রবার বিকাল উপজেলার জামনগর এলাকায় নিজ বাড়িতে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যার করে জিম।

সে বাগাতিপাড়া সরকারি ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মােজাম্মেল হক ও জামনগর ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক খালিদা বেগম দম্পতির ছেলে। সে রাজশাহী বরেদ্র কলেজের দ্বাদশ শ্রণির বিজ্ঞান বিভাগর ছাত্র ছিল।

নিহতের স্বজন ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি জামনগর ইউনিয়নের গয়লার ঘাপ এলাকার নবম শ্রণির এক ছাত্রীর সাথে খালিদ হাসান জিমরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায় বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। বিষয়টি জিমর বাবা-মা জানতে পরলে প্রেম করতে বারণ করেন। এ নিষেধে মা-বাবার ওপর তার অভিমান হয়।

সবার অলক্ষ্যে নিজর ঘর ফ্যানের সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। পরে বিকাল পরিবারর লােকজন ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ ওইদিন রাতে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নেয়। পরদিন শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য পুলিশ মরদহ নাটার আধুনিক হাসপাতালে পাঠায়। ময়নাতদন্ত শেষে দুপুরে পরিবারর কাছে লাশ হস্তান্তর করে।

বাগাতিপাড়া মডল থানার দায়িত্ব থাকা অফিসার ইনচার্জ ইন্সপক্টর (তদন্ত) স্বপন কুমার চৌধূরী বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপাের্ট পেলে সে অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।