প্লাস্টিক দিন, পেট ভরে খাবার খান!

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:০৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯ | আপডেট: ৯:০৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯

পরিবেশ বাঁচাতে শহর পরিস্কার রাখার চমকপ্রদ উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের ছত্তিশগড় পৌর কর্পোরেশন। রাজ্যের অম্বিকাপুরে পৌরসভার পক্ষ থেকে চালু হচ্ছে ‘গার্বেজ ক্যাফে’ বা আবর্জনা ক্যাফে৷

ভারতে এমন ক্যাফে এটিই প্রথম। পেটে ক্ষুধা অথচ টাকা নেই? কোনো সমস্যা নেই। প্লাস্টিক বর্জ্য দিলেই খাবার মিলবে এ গার্বেজ ক্যাফেতে, জানিয়েছেন অম্বিকাপুরের মেয়র অজয় তিরকি। ক্যাফেটি চালু হচ্ছে আগামী মাসেই।

এতে প্লাস্টিক বর্জ্য কুড়িয়ে আনলে গরিবরা বিনামূল্যে খাবার পাবেন। তবে আছে একটি ছোট্ট শর্ত। আর তা হচ্ছে, ক্যাফেতে কেউ এক কেজি বর্জ্য প্লাস্টিক নিয়ে আসতে পারলেই কেবল তাকে দেওয়া হবে এক বেলার ভরপেট খাবার। আর কেউ ৫০০ গ্রাম প্লাস্টিক আবর্জনা নিয়ে আসতে পারলে তাকে দেওয়া হবে সকালের নাস্তা।

এর ফলে সরকার প্লাস্টিক দূষণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে সহজেই। গরীব বর্জ্য কুড়ানি মানুষদেরও জুটবে পর্যাপ্ত আহার। তাছাড়া, অম্বিকাপুরবাসীদেরও কারো যদি কোনোদিন রান্না চড়াতে ইচ্ছা না করে তাহলে ভাঁড়ারের জমানো প্লাস্টিক নিয়ে ‘গার্বেজ ক্যাফে’তে গিয়ে হাজির হলেই ভরপেট খাবার মিলবে।

অম্বিকাপুর পৌরসভার বর্জ্য বিভাগ এ উদ্যোগ সফল হওয়ার আশা প্রকাশ করেছে। কারণ, এতে গরিবরা উপকৃত হওয়ার পাশাপাশি প্লাস্টিকের হাত থেকে পরিবেশ বাঁচানোর জন্যও এর চেয়ে ভাল উপায় আর নেই।

অম্বিকাপুরের মেয়র বুধবার রয়টার্সকে বলেন, “প্রত্যেককেই ক্যাফেতে প্লাস্টিক বর্জ্য আনার আহ্বান জানাচ্ছি। ক্যাফেটি মূলত নারীরা চালাবেন… প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে।”

ভারতে বহু রাজ্যেই একবার ব্যবহার্য প্লস্টিক বর্জ্য নিষিদ্ধ। কিন্তু তারপরও সরকারি হিসাবে, দেশটিতে প্রতিদিন ২৬ হাজার টন প্লাস্টিক বর্জ্য হয়। এ বর্জ্য প্রায়ই রাস্তাঘাটে কিংবা ড্রেনে ফেলা হয়।

সংবাদমাধ্যম এএনআই কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে অম্বিকাপুরের মেয়র বলেন, “পরিবেশ রক্ষায় ভারতের প্রতিটি প্রান্তে গার্বেজ ক্যাফের মত উদ্যোগ নেওয়া উচিত।”

তবে এ পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)৷ তাদের মতে এ ধরনের পদক্ষেপ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অম্বিকানগর এমনিতেই পরিস্কার পরিচ্ছন্ন শহর৷

২০১৫ সালে চালু হওয়া দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহ প্রকল্পের কারণে অম্বিকাপুর ভারতের সবচেয়ে পরিচ্ছন্ন নগরী। তাই এখানে গার্বেজ ক্যাফে করে গরিবদের খাওয়ানোর নাম করে শাসক দল রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ বিজেপি’র।

তবে বিরোধীরা যাই বলুক, শহরের বাসিন্দারা পৌরসভার এ উদ্যোগে খুশী৷ শহরকে আরও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে গড়ে তুলতে এ উদ্যোগ নজিরবিহীন বলেই এককথায় স্বীকার করছেন সবাই।