ফুটেজ দেখে মনে হচ্ছে এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড: নৌ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০ | আপডেট: ৬:৪৯:অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০

ক্যামেরার ফুটেজ দেখে মনে হয়েছে এটি দুর্ঘটনা নয়, এটি একটি হত্যাকাণ্ড। এক্ষেত্রে লঞ্চ মালিকদের গাফিলতি আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

সোমবার (২৯ জুন) সদরঘাটে যাত্রীবাহী লঞ্চ দুর্ঘটনার স্থান এবং উদ্ধার কার্যক্রম পরিদর্শনকালে একথা বলেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘এটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক, দুঃখজনক ঘটনা। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে মন্ত্রণালয় থেকে একজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। পরিবারগুলোর পাশে বিআইডব্লিউটিএ থাকবে। তাৎক্ষণিকভাবে দাফনের জন্য ১০ হাজার করে দেওয়া হচ্ছে এবং পরবর্তীতে পরিবারগুলোকে দেড়লাখ টাকা করে সহায়তা দেওয়া হবে।’

দুর্ঘটনার তদন্ত আলোর মুখ দেখে না—সাংবাদিকদের এমন অভিযোগের বিষয় তিনি বলেন, ‘তদন্ত হয় কিন্তু সাংবাদিকরা ফলো করেন না। অতীতে অনেকগুলো তদন্ত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ঘটনা দেখলে মনে হয় এটা পরিকল্পিত। ইতোমধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়ছে। ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেবে। ইতোমধ্যে চালককে গ্রেফতার করেছে নৌ-পুলিশ। আমরা সঠিক ঘটনা অনুসন্ধান করে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘লঞ্চটি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যাত্রী নিয়েছিল। স্বাস্থ্যবিধি মানার পরও তাদের সলিল সমাধি হলো। লঞ্চে নিরাপত্তা সরঞ্জাম ছিল কিনা তা আমরা তদন্ত করে দেখবো। সেখানে কেউ দায়ী হলে ব্যবস্থা হবে।