ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ায় তুলসি পাতার রস

প্রকাশিত: ৮:৪২ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০ | আপডেট: ৮:৪২:অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০

মৌসুম বদলের এই সময়ে কাশি হওয়া অত্যন্ত স্বাভাবিক। কিন্তু অতি পরিচিত এই অসুখটি এই সময়ে যথেষ্ট উদ্বেগজনক। কারণ মহামারি করোনা ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে আক্রান্ত হওয়ার যেসব লক্ষণ রয়েছে তার মধ্যে কাশি অন্যতম। তবে কাশি হওয়া মানেই যে এটি করোনার লক্ষণ এমন কিন্তু নয়। হতে পারে তা সাধারণ কোনো ফ্লু। এ জন্য করোনার মাঝে কাশি হলে তা দূর করতে নিতে হবে বাড়তি সতর্কতা।

করোনাভাইরাস মানুষের ফুসফুসকে আক্রান্ত করে। করোনায় ভালো সুস্থ হয়ে উঠলেও ফুসফুস দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তাই ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়াতে নিয়মিত তুলসি পাতার রস পান করুন। আদা, গরম মসলা সহযোগী প্রতিদিন চায়ের মতো পান করুন তুলসি পাতার রস।

সর্দি–জ্বরের প্রকোপ কমায়
তুলসি পাতা হল প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক। তাই তো জ্বর এবং সর্দি-কাশি সারাতে এই প্রাকৃতিক উপাদানটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে তুলসি পাতা শরীরে প্রবেশ করা মাত্র যে যে ভাইরাসের কারণে জ্বর হয়েছে, সেই জীবাণুগুলোকে মারতে শুরু করে। ফলে শরীর ধীরে ধীরে চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

ফুসফুস ভালো রাখে
নিয়মিত তুলসি পাতার রস খেলে আপনার ফুসফুস আগের থেকে বেশি কর্মক্ষম হবে। ফুসফুসের প্রদাহ কমায় তুলসি পাতা।

স্ট্রেস কমায়
তুলসি পাতা খাওয়া মাত্র কর্টিসল হরমোনের ক্ষরণ কমে যেতে শুরু করে। ফলে স্ট্রেস লেভেলও কমতে শুরু করে। কারণ কর্টিসল হরমোনের সঙ্গে স্ট্রেস-এর সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। প্রসঙ্গত, ডিপ্রেশন বা মানসিক অবসাদের প্রকোপ কমাতেও তুলসি পাতা দারুণভাবে সাহায্য করে। তাই তো এবার থেকে যখনই মনে হবে মানসিক চাপ হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে, তখনই তুলসি পাতা খাওয়া শুরু করবেন। দেখবেন উপকার মিলবে।

মাথা যন্ত্রণা কমায়
সিডেটিভ এবং ডিসইনফেকটেন্ট প্রপাটিজ থাকার কারণে তুলসি পাতা যে কোনও ধরনের মাথা যন্ত্রণা কমাতে দারুণভাবে সাহায্য করে। তাই আপনি যদি প্রায়শই সাইনাস বা মাইগ্রেন-এর সমস্যায় ভুগে থাকেন, তাহলে কষ্ট কমাতে তুলসি পাতাকে কাজে লাগাতে পারেন।