ফোর্বস ম্যাগাজিনে এশিয়ার সেরা তালিকায় রাবা খান

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:৫০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩, ২০২০ | আপডেট: ২:৫০:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩, ২০২০

সমাজের চেনা ছন্দে পরিবর্তন আনতে চেয়েছিলেন। ভেবেছিলেন বদল আনবেন চেনা ভাবনায়। সেই উদ্যোগই যেন বাস্তবায়িত হল। সমাজ বদলের ডাক দিয়ে এবার বিখ্যাত মার্কিন ম্যাগাজিন ফোর্বসে নাম তুললেন দুই বাংলাদেশি তরুণী। এশিয়ার মোট ৩০ জন সেরার মধ্যে নাম তুলেছেন রাবা খান এবং ইশরাত করিম নামে ওই দুই তরুণী।

তালিকায় প্রথমদিকে থাকা রাবা খান বাংলাদেশের উদ্যোক্তা, কৌতুকশিল্পী ও ইউটিউবার। আর ইশরাত করিম তার আমাল ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে দরিদ্রদের সহায়তা করেন।

বৃহস্পতিবার তালিকাটি প্রকাশ করে ফোবর্স ম্যাগাজিন। বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের ধনী, প্রভাবশালী, অনুপ্রেরণাদায়ী ব্যক্তিত্ব ও উদ্যোক্তার তালিকা ফোর্বস নিয়মিত প্রকাশ করে। এবারের ‘থার্টি আন্ডার থার্টি এশিয়া’ তালিকায় ২০২০ সালের এশীয় উদ্যোক্তার তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন এই দুই বাংলাদেশি তরুণী।

ফোবর্সের তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ফিলিপাইনের লুইস মাবুলো। তিনি তার কোকাকো প্রজেক্টের জন্য আলোচিত। দ্বিতীয় স্থানে ইন্দোনেশিয়ার মারিয়াস সান্টানু, যিনি ক্যাটারিং ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। প্রতিদিন ১৪ হাজার মানুষ তার খাবার গ্রহণ করেন।

আর সেরাদের তৃতীয় নামটি হচ্ছে রাবা খান। তার উদ্যোগের নাম ‘দ্য ঝাকানাকা প্রজেক্ট’। সেখানে তাকে এন্টারটেইনার হিসেবে বলা হয়েছে। গণমাধ্যম, বিপণন ও বিজ্ঞাপন শ্রেণি থেকে রাবা খান মনোনয়ন পেয়েছেন।

ফোর্বসের ওয়েবসাইটে রাবা খানের একটি ছবির পাশে তাঁর একটি মন্তব্য রয়েছে। সেখানে রাবা খান বলেন, ‘ক্যামেরার সামনে থাকা আমাকে আনন্দিত করে। আমার মন্তব্যগুলো মানুষকে আনন্দ দেয়, এটা বাড়তি পাওনা।’

সেরাদের তালিকায় আরেক বাংলাদেশি তরুণী ইশরাত করিম ফোর্বসে স্থান পান সোশ্যাল এন্টারপ্রাইজ শ্রেণিতে। তার সম্পর্কে বলা হয়, বিদেশে পড়াশোনা দেশে ফিরে যৌথ উদ্যোগে আমাল ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠান করেন। এই ফাউন্ডেশন বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন, বিধবা নারীসহ পিছিয়ে পড়াদের উন্নয়নে কাজ করে।

এশিয়ার ৩০০ জন তরুণ উদ্যোক্তা, নেতা ও নতুন পথ উন্মোচনকারীদের প্রাথমিক তালিকা করেছিল এই পত্রিকাটি। সেখান থেকে সেরা ৩০ জনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। এ তালিকায় প্রতিবেশীদের মধ্যে ভারতের ৬৯ জন, পাকিস্তানের ৫ জন, নেপালের ৩ জন ও মালয়েশিয়ার ১২ জন রয়েছেন।