বই কিনলে পেঁয়াজ ফ্রি!

প্রকাশিত: ১২:৩৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ১২:৩৪:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
বই কিনলে পেঁয়াজ ফ্রি দিবেন ঢাবির সাবেক এই শিক্ষার্থী। ছবি: সংগৃহীত

গত কয়েকদিনে পেঁয়াজের ঝাঁঝে দিশেহারা দেশের সর্বস্তরের মানুষ। পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি কিছুতেই রোধ করা যাচ্ছে না। বাড়তে বাড়তে গতকাল পেঁয়াজের মূল্য ২০০ টাকা অতিক্রম করে। আজ তা আরও বেশি।

লাফিয়ে লাফিয়ে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সরকার ও বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা। এ বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ প্রহণের পাশাপাশি তারা পেঁয়াজ আমদানিতে শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। কেউ কেউ আবার এটিকে ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখছেন।

তবে ব্যবসায়ীদের এমন কর্মকাণ্ড ও পেঁয়াজের বাজারের উর্ধ্বমুখীতার প্রতিবাদ জানাতে এবার ভিন্নধর্মী উদ্যোগ নিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী সাজ্জাদুল ইসলাম।

বইয়ের ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত এই শিক্ষার্থী পাঠকরা বই কিনলে প্রতিটি বইয়ের সাথে প্রতিবাদ হিসাবে একটি করে পেঁয়াজ ফ্রি দেবেন বলে জানিয়েছেন।

জানা যায়, পাঠকদের নিকট দীর্ঘদিন ধরে বই বিক্রি করে আসছেন এ শিক্ষার্থী। পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধিতে শুরু থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন। সর্বশেষ ব্যবসায়ীদের কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে এই কার্যক্রম হাতে নেন তিনি।

সাজ্জাদুল ইসলাম তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘ভোলগা থেকে গঙ্গা, দাম ২০০ টাকা মাত্র। সাথে বড় একটা পেঁয়াজ ফ্রি.. পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধিতে মিশোপার পক্ষ থেকে প্রতিবাদ হিসেবে আমরা প্রতি বইয়ের সাথে একটা করে পেঁয়াজ ফ্রি দিবো।’

এই শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে জানা যায়, চলতি সময়ে পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে পড়ছে। প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ২০০ টাকা ছাড়িয়ে গেছে। কোথাও কোথাও এই পেঁয়াজের জন্য মারামারি করতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, এমন দুর্দিনে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিজেদের ব্যবসায়ীক স্বার্থ আদায় করতে বিভিন্ন ধরনের অফার দিচ্ছেন। তার প্রতিবাদ হিসেবে আমি এ প্রতিবাদী কার্যক্রম শুরু করেছি।

কতদিন এই কার্যক্রম চলবে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল হওয়া এবং পেঁয়াজ নিয়ে ব্যবসায়ীক রাজনীতি বন্ধ না করা পর্যন্ত এই প্রতিবাদ কর্মসূচি চালবে।’