বই মানুষের মনকে ঐশ্বর্যবান করে তোলেঃসোহেল তাজ

প্রকাশিত: ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৯ | আপডেট: ১২:১৫:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

গাজীপুর প্রতিনিধি।।সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও তাজউদ্দীন আহমদ এন্ড সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সহ সভাপতি তানজিম আহমদ সোহেল তাজ বলেন, বই মানুষের মনকে ঐশ্বর্যবান করে তোলে। তোমরা যত বেশি বইপড়বে, তত ঐশ্বর্যবান হবে। তোমাদের হৃদয় সুন্দর হোক, তোমাদের ভাষা সুন্দর হোক, তোমাদের জীবন সুন্দর হোক। সে জীবন দিয়ে তোমরা যে বাংলাদেশ গড়বে তা যেন সুন্দর হয়। আলোকিত মানুষ গড়ার লক্ষ্যেই বছরব্যাপী স্কুলভিত্তিক বইপড়া কর্মসূচী ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সোমবার কাপাসিয়া উপজেলার পালকি কমিউনিটি সেন্টারে তাজউদ্দীন আহমদ এন্ড সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বছরব্যাপী স্কুলভিত্তিক বইপড়া কর্মসূচীর পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গাজীপুর-৪ কাপাসিয়া আসনের সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমির সভাপতিত্বে অন্যানের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, কাপাসিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসমত আরা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রাকিব হাসান, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মাহবুবুর রহমান, ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক মনজেরে আহসান মো. গোলাম কিবরিয়া, ফাউন্ডেশনের সদস্য আলমগীর কবির, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাইয়ুম ভূইয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা, এ্যাডভোকেট ও রাষ্ট্রদূত জমিরউদ্দন আহমেদের মেয়ে তাসলিমা প্রমূখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ফাউন্ডেশনের সংগঠক পারভেজ আহমেদ পাপেল।

ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও গাজীপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি সভাপতির বক্তব্যে বলেন, পৃথিবীকে অশুভ মানুষের দখল থেকে মুক্ত করার হাতিয়ার হ”েছ বই। বই মানে আলো। বই পড়লে জ্ঞান অর্জন করা যায়। জ্ঞান অর্জন করতে পারলে সমাজ রাষ্ট্রসহ সব জায়গায় আলোকিত মানুষ হওয়া সম্ভব। বই মানুষের জীবনকে সুন্দর করে। বই মানুষকে আলোকিত করে।

উল্লেখ্য ২০১৭ সাল থেকে তাজউদ্দীন আহমদ এন্ড সৈয়দা জোহরাতাজউদ্দীন মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কাপাসিয়ার ১১ টি ইউনিয়নের ৪৫ টিশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই বই পড়া কর্মসূচী পরিচালিত হ”েছ। ২০১৮ সালে বইপড়া কর্মসূচীতে ১৪ হাজার ৫০০ জনছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। এবং বছর শেষে মূল্যায়ন পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ২৩১ জন ছাত্র-ছাত্রী প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে। আজকের এই অনুষ্ঠানটি উৎসর্গ করা হয় তাজউদ্দীন আহমদের ঘনিষ্ট বন্ধু বীর মুক্তিযোদ্ধা, এ্যাডভোকেট ও রাষ্ট্রদূত জমিরউদ্দন আহমেদের স্মৃতির স্মরণে।