বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি’র উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎযাপন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৩১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২১ | আপডেট: ৩:৩১:অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২১

জার্মান বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ১৩ই মার্চ শনিবার বঙ্গবন্ধু’র ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ ‘র সুবর্ণ জয়ন্তী পালন উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জার্মানিতে মাননীয় রাষ্ট্রদূত জনাব মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, নাসার আহমেদ চৌধুরী, জামুকা মহাপরিচালক জনাব জহিরুল ইসলাম রুহেল, বিশিষ্ট কবি, সংগঠক জুবাইদা গুলশান আরা হেনা, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ গণি, সর্ব ইউরোপিয়ান বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি নাহার মমতাজ, লেখক সুজাত মনসুর, অনারারি কনসুলেট ইন্জিনিয়ার হাসনাত মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা বজলুর রশিদ বুলু, লিংকন মোল্লা, হুমায়ুন কবির, জান্নাতুল ফরহাদ, জার্মান বাংলা প্রেসক্লাব সভাপতি খান লিটন, সানি মোহাম্মদ, রাফাত সরকার, সামি দাস, খোকন হায়দার।

সংগঠনের উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য অধ্যাপক ড: গোলাম আবু জাকারিয়া, খসরু খান, মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন, নাজমুন নেসা পিয়ারী, আব্দুল কাদের, সিনিয়র সহসভাপতি হাফিজুর রহমান আলম,নূর জাহান নূরী, নোমান হামিদ, মাসুদুর রহমান, সজিবুর রহমান সেরনিয়াবাত, রিপন মিয়া, আলম খান, ফিরোজ আহমেদ, সাইব খান, নেয়ামূল ভূইয়া, মোহাম্মদ কুদ্দুস আলী, অমিত মজুমদার, ইমূনূর রহমান মূসা, এম এম এইচ রাসেল, ফরহাদুজ্জামান ভূইয়া ও আরো অনেকে।

নাসার আহমেদ চৌধুরী ছিলেন অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ। তিনি ৭ই মার্চ রেডিও পাকিস্তান ঢাকা কেন্দ্রর পক্ষ থেকে ভাষণটি টেপে ধারণ করেছিলেন। তিনি ১৯৭১এর ৭ই মার্চের সেদিনের স্মৃতিচারণ করেন, কি প্রতিকূলতার মধ্যে তাঁকে ভাষণটি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ধারণ করতে হয়েছিল।

অনুষ্ঠানে ৭ই মার্চের ভাষণের উপর মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন জার্মান বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের তথ্য গবেষণা সম্পাদক জনাব মমতাজুল ফেরদৌস জোয়ার্দার। জার্মান বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি জনাব মাহফুজ ফারুকের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খালেদের সন্চালনায় ৫ ঘণ্টার অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।