‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিকের জন্য শুভ’র শর্ত

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ, জুন ১০, ২০২১ | আপডেট: ১১:১৭:পূর্বাহ্ণ, জুন ১০, ২০২১

সময়ের আলোচিত নায়ক আরিফিন শুভ। মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু। ক্যারিয়ার গড়তে তাকে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। ময়মনসিংহ থেকে মাত্র ২৫৭ টাকা নিয়ে ঢাকা এসেছিলেন রেলগাড়িতে চড়ে। শুভ এখন সুদিনে ফিরেছেন। হতে চলেছেন ইতিহাসের সাক্ষী।

শুভ জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করছেন। এ ক্ষেত্রে শুভর পক্ষ থেকে একটি শর্ত ছিল। শর্তের কথা ফেইসবুকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানিয়েছেন এই অভিনেতা।

এটুকু পড়ে পাঠকের হয়তো মনে হতে পারে, সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ করার আগে যেখানে প্রযোজক নায়ক-নায়িকাকে শর্তজুড়ে দেন সেখানে উল্টো ঘটনা ঘটলো কেন? শুভ জানিয়েছেন বিষয়টি আসলে তেমন কিছু নয়, দেশের স্মরণকালের সবচেয়ে বিগ বাজেটের এই সিনেমায় শুভ পারিশ্রমিক নিয়েছেন মাত্র এক টাকা!

শুভ লিখেছেন: ‘শর্ত একটাই- সম্মানি নেব এক টাকা।’ স্ট্যাটাসে এর কারণ উল্লেখ করে এই অভিনেতা আরো লিখেছেন: ‘অর্থ দিয়ে হয়তো পার্থিব কিছু সুখ পাওয়া যাবে, কিন্তু আত্মার তৃপ্তি মিলবে না।’

শুভ মনে করেন তার অভিনয়জীবনের সেরা চরিত্র শেখ মুজিবুর রহমান। এখানে টাকাটা মুখ্য নয়। শুভর ভাষ্য অনুযায়ী, ‘‘অভিনয়শিল্পী হিসেবে আমার মনে হয়েছে, চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে হলে সেটার নার্ভ ধরতে হয়, হোক সেটি ফিকশন বা কাল্পনিক।

শুনেছি, বঙ্গবন্ধু জীবনের ১১ বছর ৪ মাস ২২ দিন কারাগারে কাটিয়েছেন। এই মানুষটার চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য স্যাক্রিফাইস। জীবদ্দশায় তিনি মানুষ ও দেশের জন্য কেবল ত্যাগই করে গেছেন।

বঙ্গবন্ধুর সাহস আর স্যাক্রিফাইসের কাছে আমার এই স্যাক্রিফাইস কিছুই না। সেই ভাবনা থেকেই পরিচালককে বলেছিলাম, প্রাপ্য যাই হোক, আমি নেব না। এও বলেছিলাম, যেহেতু আমার রক্ত, ঘাম সবই এই সিনেমায় থাকবে, যে কারণে ফ্রিতেও কাজ করবো না- পারিশ্রমিক নেব। তাই আমি এক টাকা নিয়েছি।’

ঐতিহাসিক এই বায়োপিকে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগে শুভর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল কোনো শর্ত আছে কি না? তখন শুভ পরিচালককে বিষয়টি জানান। শুভর এমন শর্ত শুনে মুগ্ধ হয়েছিলেন পরিচালক শ্যাম বেনেগাল। তিনি শুভকে শুটিং সেটে ‘এক টাকার আর্টিস্ট’ বলে ডাকতেন। শুভ’র জন্য এই নাম শ্যাম বেনেগাল নিজেই ঠিক করেছিলেন।

২০১৯ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি ‘বঙ্গবন্ধু’ সিনেমায় অভিনয়ের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পান শুভ। এর আগে ৫ দফা তাকে অডিশন দিতে হয়েছে। এরই মধ্যে ভারতের মুম্বাইয়ে বায়োপিকের বেশিরভাগ অংশের কাজ শেষ করেছেন পরিচালক। খুব শিগগিরই বাংলাদেশ অংশের শুটিং শুরু হবে বলে জানা গেছে।