বডিস্প্রে নয়, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করুন ঘরোয়া উপায়ে

প্রকাশিত: ৪:১৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ৪:১৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮

গরমের দিনে বা বর্ষার গুমোট আবহাওয়ায় শরীরে এত বেশি ঘাম হয় যে, মাঝে মাঝে এই ঘামের দুর্গন্ধ অসহ্যকর হয়ে ওঠে। ঘামের দুর্গন্ধের চোটে অনেক জায়গাতেই অপ্রস্তুত অবস্থায় পড়তে হয়। তবে সকলের শরীরের ঘামের পরিমাণ একরকম হয় না। কেউ বেশি ঘামেন, আবার কেউ কম। শরীরে ব্যাকটেরিয়ার বংশবৃদ্ধির কারণেই ঘামে দুর্গন্ধ দেখা দেয়। ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে বাজারে নানা রকম বডিস্প্রে, রোল অন জাতীয় সুগন্ধি পাওয়া যায় এবং আমরা সেগুলো ব্যবহারও করে থাকি। তাতে কাজও হয় ভালই। কিন্তু সমস্যা হল, বাজারে উপলব্ধ এই সব সুগন্ধিতে থাকা ক্ষতিকারক রাসায়নিক আমাদের ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। তাই ক্ষতিকারক রাসায়নিক যুক্ত এই সব বডিস্প্রে, রোল অন ব্যবহার না করে ঘরোয়া উপায়েই ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার কৌশল জেনে নিন।

মধু

একটি পাত্রে সামান্য উষ্ণ গরম জল নিয়ে তাতে সামান্য পরিমাণ মধু মিশিয়ে রেখে দিন। স্নানের শেষে মধু মিশ্রিত জল গায়ে ঢেলে নিন। এই মিশ্রণটি ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করবে।

বেকিং সোডা

বেকিং সোডা পেস্ট বানিয়ে বগলে লাগিয়ে নিন। এটি ঘামের কটূ গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে। তাছাড়া বগলের অতিরিক্ত ঘাম রোধ করার জন্য বেকিং সোডার সঙ্গে কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে নিতে পারেন।

গোলাপজল

ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য সবচেয়ে সহজ উপায় হল গোলাপজলের ব্যবহার। স্নানের জলের সঙ্গে পরিমাণ মতো গোলাপজল মিশিয়ে নিয়ে স্নান করুন। এই উপায়টি দীর্ঘক্ষণ দেহকে ঘামের দুর্গন্ধ থেকে দূরে রাখে। এটি খুব কার্যকরী।

নিম পাতা

নিম পাতার ব্যবহারে ঘামের দুর্গন্ধ রোধ করা যায় সহজেই। ঘামের দুর্গন্ধ হওয়ার জন্য শরীরে যে ব্যাকটেরিয়া দায়ি, সেই ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি রোধ করার জন্য নিম পাতা খুব উপকারী। কিছু নিমপাতা জলে দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। স্নান করার সময় এই জল ব্যবহার করুন। এই পদ্ধতি শরীরের টক্সিন রোধ করে এবং ঘামের কটূ গন্ধ দূরে রাখে।