বন্য নেকড়ের মতো আচরণ করছে আমেরিকা: এরদোয়ান

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:১০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮ | আপডেট: ৬:১০:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোয়ান বলেছেন, আমেরিকা বন্য নেকড়ের (বাঘ) মতো আচরণ করছে। রাশিয়া ও অন্যান্য দেশের সঙ্গে ডলারের পরিবর্তে স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেনের কথাও বলেন তিনি।

রোববার কিরগিজস্তান সরফরত তুর্কি প্রেসিডেন্ট একটি ব্যবসায়ী ফোরামের সঙ্গে আলোচনাকালে এসব কথা বলেন। আলজাজিরা বলছে, ওই ফোরামে এরদোয়ান বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে ডলার ব্যবহার না করার বিষয়ে আলোচনা চলছে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমাদের উচিত আস্তে আস্তে ডলারের একচেটিয়া আধিপত্য খর্ব করা। আর এ জন্য আমাদের মধ্যে স্থানীয় ও জাতীয় মুদ্রা ব্যবহার করতে হবে।’

প্রসঙ্গত, ব্রিটেনে গুপ্তচরের ওপর নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগের অভিযোগে এবং তুরস্কে এক মার্কিন যাজককে গ্রেফতার করায় দুই দেশের ওপরই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সেটা কীভাবে মোকাবিলা করা যায় তা নিয়ে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে মস্কো ও আঙ্কারা।

তুরস্কের স্টিল ও অ্যালুমিনিয়াম আমদানির ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করায় তুর্কি মুদ্রা লিরার মূল্য প্রায় ৪০ শতাংশ কমে গেছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে তুর্কি সরকার। আঙ্কারাও কয়েকটি মার্কিন পণ্য আমদানির ওপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করেছে।

রোববারের ওই আলোচনায় এরদোয়ান আরো বলেন, ‘আমেরিকা বন্য নেকড়ের মতো আচরণ করছে। ওদের বিশ্বাস করবেন না। ডলার ব্যবহারের কারণে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। তবে আমরা ছাড়ব না। আমরাই বিজয়ী হব।’

এ ছাড়া তুরস্ক রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কেনার যে চুক্তি করেছে সে ব্যাপারে আঙ্কারা কারো পরামর্শ নেবে না বলেও উল্লেখ করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

রাশিয়ার অত্যাধুনিক ওই ক্ষেপণাস্ত্র কেনার ব্যাপারে ২০১৭ সালে চুক্তি করার পরই তুরস্কের ওপর ক্ষেপে যায় আমেরিকা। এ ছাড়া ২০১৬ সালে তুরস্কে ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার অভিযোগে এক মাকির্ন যাজককে গ্রেফতার করায় তাতে নতুন মাত্রা যোগ হয়।

অন্যদিকে, তুরস্কের গণমাধ্যম আনদলু বলেছে, কিরগিজস্তানে একটি কালচারাল সেন্টার উদ্বোধন করেছেন তুর্কি ফার্স্ট লেডি এমিন এরদোয়ান।