বলিউডকে পেছনে ফেলে অস্কারে যাচ্ছে মালায়ালাম ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৫:৪০:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

বলিউড ইন্ডাস্ট্রির কোনো ব্লকবাস্টার বা আলোচিত সিনেমা নয়, হিন্দি, ওড়িয়া এবং মারাঠিসহ মোট ২৭টি সিনেমাকে পেছনে ফেলে ৯৩তম অস্কারের দৌড়ে বাজিমাত করলো মালায়ালাম ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’। অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডে সেরা আন্তর্জাতিক ফিচার ফিল্ম ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে ছবিটি।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে ফিল্ম ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।

২৭টি ছবির মধ্য়ে থেকে ‘জাল্লিকাট্টু’কে বেছে নেন জুরিরা। আর যে ছবিগুলি অস্কারে যাওয়ার দৌড়ে ছিল সেগুলি হল দ্য ডিসাইপল, শকুন্তলা দেবী, শিকারা, গুঞ্জন সাক্সেনা, ছপাক, একে ভার্সাস একে, গুলাবো সিতাবো, ভোঁসলে, কামইয়াব, ছলাং, দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক, বুলবুল, সিরিয়াস মেনের মতো ছবি।

জুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান রাহুল রাওয়াল জানিয়েছেন, কেন বেছে নেওয়া হয়েছে ‘জাল্লিকাট্টু’ ছবিকে। তিনি বলেছেন, লিজো জোসে পেলিসারির ছবি মানুষ যে পশুরও অধম সেই দিকটা তুলে ধরেছে। মানুষের ব্যবহার যে পশুর থেকেও খারাপ সেটাই দেখানো হয়েছে সিনেমায়। ছবিতে দেখানো হয়, হারিয়ে যাওয়া একটি ষাঁড়কে খুঁজতে রাস্তায় নেমে পড়ে প্রায় গোটা গ্রাম। হাতে মশাল নিয়ে ওই ষাঁড়কে খুঁজতে বন, জঙ্গল পেরিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ছুটতে শুরু করে মানুষ।

রাহুল বলেছেন, “এমন ছবির প্রোডাকশনের জন্য আমাদের গর্বিত হওয়া উচিত। এমন আবেগ, যা আমাদের সবাইকে নাড়িয়ে দিয়েছে। লিজো অত্যন্ত গুণী পরিচালক। তাই আমরা ‘জাল্লিকাট্টু’কে বেছে নিয়েছি।”

ছবিতে অভিনয় করেছেন অ্যান্টনি ভারগিস, চেম্বান বিনোদ জোসে, সাবুমন আবুসামাদ এবং স্যান্টি বালাচন্দ্রণ। এস হরেশের গল্পের অবলম্বন করে তৈরি এই ছবি। দেশের বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে প্রশংসা কুড়িয়েছে মালয়ালি ছবি।

২০১৯ সালে টরন্টো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয় এই ছবির। ৫০তম ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে লিজো জোসে পেলিসারি সেরা পরিচালকের পুরস্কার পান। গত বছর জোয়া আখতারের ছবি ‘গাল্লি বয়’ অস্কারের জন্য ভারতের এন্ট্রি ছিল।