বাংলাদেশের বিপক্ষেই কেন দিবারাত্রির টেস্ট, জানালেন সৌরভ

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: 12:45 PM, November 22, 2019 | আপডেট: 12:45:PM, November 22, 2019

গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির টেস্টের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৫ সালে। মানে দিবা-রাত্রির টেস্ট ৪ বছর পেরিয়ে পঞ্চম বছরের পথ চলছে। কিন্তু টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল ভারত এখনো দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলেননি। কোনো দেশ ভারতকে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে আমন্ত্রণ জানায়নি এমন নয়। আমন্ত্রণ ঠিকই জানিয়েছে। কিন্তু ভারত রাজি হয়নি।

তবে এবার বাংলাদেশের বিপক্ষে ঠিকেই রাজি ভারতীয় ক্রিকেটাররা। আজ শুক্রবার (২২ নভেম্বর) ঐতিহাসি দিবারাত্রির টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারত। এই দুই দল আগে একাধিকবার দিবারাত্রির টেস্ট খেলার প্রস্তাব পেলেও কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স হতে যাচ্ছে নিজেদের গোলাপির বলের টেস্ট ইতিহাসের সাক্ষী।

ভারত-বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর প্রাক্বালে দিবারাত্রির টেস্ট আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়। হুট করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও এই ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখতে আয়োজনের কমতি নেই।

ইডেনে দিবারাত্রির টেস্ট আয়োজনে কেন বাংলাদেশকেই বেছে নেওয়া হল, এই প্রশ্ন অনেকের মনেই। এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। এই টেস্টের পর আগামী এক বছর নিজেদের মাটিতে কোনও টেস্ট নেই ভারতের। আর দলটি নিজেদের মাটিতেই গোলাপি বলে প্রথম টেস্ট খেলতে চেয়েছিল।

মূলত এ কারণেই দিবারাত্রির টেস্টের জন্য বাংলাদেশকে প্রতিপক্ষ হিসেবে বেছে নেওয়া।

বাংলাদেশকে দিবারাত্রি টেস্টের প্রতিপক্ষ হিসেবে বেছে নেওয়ার কারণ জানিয়ে সৌরভ বলেন, ‘পরবর্তী এক বছর ভারতে আমাদের কোনো টেস্ট নেই।’

কলকাতার বাঙালিনা পরিবেশে বাংলাদেশ যেন আরেক হোম টিম। সৌরভের প্রত্যাশা, বাংলাদেশিরা ভালো খেলবে, ‘বাংলাদেশের মত’।

তিনি বলেন, ‘আশা করি বাংলাদেশ ভালো খেলবে। বাংলাদেশের মত খেলবে।’

ইডেনের উইকেট থেকে শুরু করে সবই তদারকি করেছেন সৌরভ। ম্যাচের আগের দিন কাটিয়েছেন ব্যস্ত সময়। যে পিচ নিয়ে এত কৌতূহল, তার একটা আন্দাজ পাওয়া গেল বিসিসিআই সভাপতির কথায়।

তিনি জানান, কুইক পিচ, ফাস্ট বোলারদের সহায়তা করবে। ইডেনে বরাবরই তাই। গত চার বছর ধরে।’

‘হাউসফুল’ হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সৌরভ বলেন- ‘হ্যাঁ, সব টিকেট তো ফুরিয়ে গেছে!’