বাংলাদেশে বন্ধ হচ্ছে ‘উবার ইটস’

প্রকাশিত: ৬:১০ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৬:১০:অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০

রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার ডেলিভারি সেবা ‘উবার ইটস’ বন্ধ হতে যাচ্ছে। মাত্র এক বছরে সেবা দিয়ে ২ জুন থেকে বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে নিচ্ছে উবার।

উবার এক বার্তায় জানায়, আগামী ২ জুন থেকে বাংলাদেশে উবার ইটস’র কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তবে তাদের রাইডশেয়ারিং সার্ভিস চালু থাকবে।

মঙ্গলবার এক ব্লগপোস্টে উবার ইটস বাংলাদেশের লিড মিশা আলি তাদের সেবা বন্ধ হবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি তিনি।

ওই ব্লগ পোস্টে আরও জানানো হয়, ‘সহজ ও নির্ভরযোগ্যভাবে খাবার পৌঁছে দেওয়ার সেবা চালুর এক বছর পর প্রতিষ্ঠানটি কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী ২ জুন থেকে বাংলাদেশে উবার ইটসের সেবা বন্ধ হচ্ছে।’

যদিও কেন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে কিছু বলেনি উবার কর্তৃপক্ষ।

প্রতিষ্ঠানটি তাদের পার্টনার, ব্যবহারকারী, গ্রাহক এবং বাংলাদেশে উবার ইটস কমিউনিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছে।

এরআগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ভারতেও উবার তাদের খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানটি দেশটির জোমাটোর কাছে বিক্রির মাধ্যমে দেশটিতে কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়।

তার চার মাস পর বাংলাদেশেও একই ঘোষণা দিলো উবার। তবে প্রতিষ্ঠানটির রাইড শেয়ারিং সেবা চালু থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

গত বছরের ৩০ এপ্রিল দেশে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করেছিল উবার ইটস।

সেসময় উবার ইটসের ভারত ও দক্ষিণ এশিয়ার প্রধান ভাবিক রাঠোর জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশের প্রতি উবারের প্রতিশ্রুতির একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে উবার ইটস বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। উবার যে প্রযুক্তির জন্য বহুল পরিচিত, তার সঙ্গে আমরা এমন একটি বাজার তৈরির চেষ্টা করছি, যা আমাদের গ্রাহক, রেস্টুরেন্ট ও ডেলিভারি পার্টনারদের কাছে ভিন্ন মাত্রা যোগ করবে।

২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলেসে উবার ইটস যাত্রা শুরু করে। পরের বছর কানাডার টরেন্টোতে স্বতন্ত্র অ্যাপ হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে।

বর্তমানে পৃথিবীর ৩৫টি দেশের ৩৫০টিরও বেশি শহরে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে উবার ইটস।