বার্সা, রিয়াল ও য়্যুভেন্তুসের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৫৯ অপরাহ্ণ, মে ১২, ২০২১ | আপডেট: ৮:৫৯:অপরাহ্ণ, মে ১২, ২০২১

কী আছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও জুভেন্টাসের ভাগ্যে? উয়েফা কি নিষিদ্ধ করবে তিন ক্লাবকে? শিগগিরই হয়তো জানা যাবে তা। এই তিন ক্লাবের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে উয়েফা।

আজ ইউরোপীয় ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা উয়েফা ক্লাব তিনটির বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত শুরু করার ঘোষণা দিয়েছে। ইউরোপিয়ান সুপার লিগ বাতিল হয়ে গেলেও এই তিনটি ক্লাব এখনো সেই পরিকল্পনা থেকে বের হয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়নি।

বহুল আলোচিত ইউরোপিয়ান সুপার লিগ চালুর প্রচেষ্টায় রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও য়্যুভেন্তুসের বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য পরিদর্শক নিয়োগ দিয়েছে উয়েফা।

‘বিদ্রোহী’ টুর্নামেন্টটিতে এখনও টিকে থাকা এই তিনটি ক্লাবকে শাস্তি ভোগ করতে হবে বলে গত শুক্রবার জানিয়েছিলেন উয়েফা সভাপতি আলেকসান্দের চেফেরিন। বুধবার তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর কথা জানায় ইউরোপীয় ফুটবলের নিয়ন্তা সংস্থাটি।

“তথাকথিত ‘সুপার লিগ’ প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও য়্যুভেন্তুস দ্বারা উয়েফার আইনি কাঠামোর সম্ভাব্য লঙ্ঘনের বিষয়ে তদন্ত করার জন্য উয়েফা আজ (বুধবার) এথিকস ও ডিসিপ্লিনারি পরিদর্শক নিযুক্ত করেছে।”

গত মাসে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আবির্ভুত হয় সুপার লিগ। তাতে ইউরোপের ১২টি শীর্ষ ক্লাব যোগ দেওয়ার ঘোষণা দিলে ঝড় ওঠে ফুটবল বিশ্বে। সমালোচনায় মুখর হয় ফুটবল বিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে ক্লাবগুলোর সমর্থকরাও। সঙ্গে নিষেধাজ্ঞার হুমকি তো ছিলই।

প্রবল চাপের মুখে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সরে দাঁড়ায় ইংল্যান্ডের ৬ ক্লাব। পর দিন সেই কাতারে যোগ দেয় ইন্টার মিলান ও আতলেতিকো মাদ্রিদ। তাতে প্রকল্পটি কার্যত মুখ থুবড়ে পড়ে। পরবর্তীতে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় এসি মিলানও।

টুর্নামেন্টটি থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেওয়া ৯ ক্লাব পুরনো অবস্থায় ফেরার অঙ্গীকারনামা ‘ক্লাব কমিটমেন্ট ডিক্লারেশন’ এ স্বাক্ষর করেছে বলে গত শুক্রবার বিবৃতি দিয়ে জানায় উয়েফা। একই সঙ্গে সুপার লিগ প্রকল্পে রয়ে যাওয়া তিন ক্লাবকে শাস্তি দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরুর কথা জানানো হয়।

পরদিন ওই তিন ক্লাব বিবৃতিতে জানায়, প্রকল্পটি থেকে সরে দাঁড়াতে তাদের ওপর ‘অসহনীয়’ চাপ দিচ্ছে উয়েফা। একই সঙ্গে সিদ্ধান্তে অটল থাকার কথাও জানায় তারা।