বাড়ি থেকে পালানোর পর প্রেমিকের ‘না’ করায় কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ৮:২৯ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০ | আপডেট: ৮:৩৯:অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০
ছবিঃ প্রতিকী

আমিনুল ইসলাম, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগর উপজেলার খাহ্রা আদর্শ ডিগ্রি কলেচের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বাড়ৈখালী ইউনিয়নের মদন খালী গ্রামে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, ওই কলেজের এইচএসসি পরিক্ষার্থী মুক্তা আক্তারের (১৭) সাথে তারই সহপাঠি মোঃ সাইম এর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাইম তার এক বন্ধুর মাধ্যমে মুক্তাকে বিয়ের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে আসতে বলে। মুক্তা বাড়ি থেকে বের হয়ে সাইমের কাছে চলে আসে। প্রায় ৩ ঘন্টা পর সাইম জানায় এখন সে বিয়ে করতে পারবে না।

এনিয়ে তাদের মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। পরে সাইমের কয়েক বন্ধু মিলে রাত সাড়ে ৯টার দিকে মুক্তাকে তার বাড়িতে পৌছে দেওয়ার জন্য একটি স’মিলের সামনে নিয়ে আসে। এসময় স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ মিলে মুক্তার বাবা মদনখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আসাদুজ্জামানের কাছে তার মেয়েকে বুঝিয়ে দেয়। রাত আড়াইটার দিকে আসাদুজ্জামানের স্ত্রী রোজা রাখার জন্য ঘুম থেকে জেগে দেখতে পান তার মেয়ের লাশ ঝুলছে।

শুক্রবার সকালে শ্রীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশটি উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকেই সাইম পলাতক রয়েছে। তার বাবার বাড়ি ফরিদপুর। সে খাহ্রা এলাকায় তার নানা মুজিবুর রহমানের বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করত।

মুক্তার লাশ উদ্ধারকারী শ্রীনগর থানার এসআই আশিক জানান, লাশটি ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।