বিএনপি সমাবেশে ছাত্রদলের দুই গ্রুপে ধাওয়া পাল্ট ধাওয়া

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৩৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৩৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি সমাবেশে ছাত্রদলের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় নিজ সংগঠনের নেতাকর্মীদের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফিক। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে রবিবার বেলা তিনটার দিকে বিএনপির জনসভা চলাকালে মূল মঞ্চের পেছনে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা থেকে মিছিল নিয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ করে। এ সময় মঞ্চের সামনে জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে এবং পূর্ব-বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষ সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে।

এ সময় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মঞ্চের পেছনে লাঠিসোটা নিয়ে একে অপরের দিকে ছুটে যায়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও মারামারির ঘটনা ঘটে।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক কাওসারের গ্রুপের লোকজন হামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন রফিকের গ্রুপের কর্মীরা। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ওমর ফারুক কাওসার।

শুরুর দিকে মূল মঞ্চে থাকলেও পরে নিচে নেমে মঞ্চের পেছনের দিকে চলে যান রফিক। সঙ্গে নিজের কর্মীরা থাকলেও হঠাৎ একা পেয়ে সেখানে থাকা নিজ ক্যাম্পাসের অন্যগ্রুপের কর্মীরা তার ওপর হামলা করে। সে গ্রুপের নেতৃত্ব দেন জগন্নাথ ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক ওমর ফারুক কাওসার। হামলার সময় তার চোখেমুখে কিলঘুষি মারা হয়। এক পর্যায়ে তার গায়ের শার্ট ছিঁড়ে যায়।

পরে জগন্নাথের সাবেক ছাত্রদল নেতারা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। এরপর হামলাকারী ছাত্রদল কর্মীরা মিছিল নিয়ে রমনা কালীমন্দিরের দিকে চলে যান।

কিছুক্ষণ পর রফিকের অনুসারীরারা লাঠিসোটা নিয়ে হামলাকারী গ্রুপকে খুঁজতে থাকে। কিন্তু ততক্ষণে তারা এলাকা ত্যাগ করেছে। এ ঘটনায় কিছুক্ষণ মঞ্চের পেছনের অংশে উত্তেজনা বিরাজ করে।