বিকাশের নতুন চার্জঃহাজারে আড়াই টাকা বেশি গুণতে হবে গ্রাহকে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৫:২৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮

টিবিটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিঃগ্রাহকদের দৌড়গোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে প্রায় পাঁচ মাস আগে অ্যাপ চালু করেছিলো জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান বিকাশ। ওই সময় চালু করা প্রমোশনাল অফারটি তুলে নিয়েছে বিকাশ। গতকাল বুধবার থেকে এটি কার্যকর হয়েছে।

আধুনিক সংস্করণ অ্যাপ সেবায় বিকাশের গ্রাহকদের এখন হাজারে আড়াই টাকা বেশি গুণতে হবে। অ্যাপ চালুর মাত্র ৫ মাসের মাথায় প্রতিষ্ঠানটি চার্জে ছাড় তুলে নিয়েছে। তথ্যমতে, অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ আউটের ক্ষেত্রে এটি প্রযোর্জ হবে।

তবে নরমাল রেট আগের মতোই আছে। অফারটি তুলে নেয়ার ফলে গ্রাহককে এখন চার্জ দিতে হবে হাজারে সাড়ে ১৭ টাকা। অ্যাপ চালুর পর যা ছিল ১৫ টাকা। প্রতিষ্ঠানটি এরই মধ্যে গ্রাহকদের মোবাইল ফোনে ক্ষুদেবার্তাটি পাঠিয়েছে। বিকাশ বলছে, তাদের ক্যাম্পেইন ছিল। অ্যাপ চালুর পর ওই ক্যাম্পেইনের আওতায় গ্রাহকদের হাজারে সাড়ে ৩ টাকা ছাড় দিয়ে ১৫ টাকা করা হয়।

এখন সেই ক্যাম্পেইন তুলে নেয়া হয়েছে। তবে অ্যাপে ক্যাশ আউটের চার্জ এখনও সাধারণ চার্জ এক টাকা কম আছে। গ্রাহকরা বলছেন, প্রযুক্তির উৎকর্ষতার যুগে চার্জ বা ফি যখন উত্তরোত্তর কমানোর কথা, তখন বিকাশ গ্রাহকদের কাছ সুযোগ নিয়ে তাদের ব্যবহার করছে। গ্রাহকদের অ্যাপে ঢুকিয়ে নিয়ে আবার চার্জ বাড়িয়ে দিচ্ছে।

বিকাশের একজন গ্রাহক সুশান্ত বলছেন, অ্যাপ চালু হওয়ার পর আমি নিয়মিতই সেটা ব্যবহার করি। এতে অনেক ঝামেলা মুক্ত হই। সাধারণ প্রক্রিয়ায় বিকাশের টাকা লেনদেনের ক্ষেত্রে অ্যাপের মাধ্যমে টাকা লেনদেনই আমার কাছে সহজ মনে হয়েছে। কিন্তু বিকাশ যে চার্জ বাড়ালো এটা ঠিক হয়নি।

গ্রাহকের কাছে জনপ্রিয়তার দিকটা ভেবে তাদের উচিত ছিল চার্জ কমানো। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির হেড অব ব্র্যান্ড সামসুদ্দিন হায়দার ডালিম আমার সংবাদকে বলেন, অ্যাপ চালু করার সময় গ্রাহকদের একটি অফার দেয়া হয়েছিলো। সেখানে বলা ছিলো পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ অফার চলবে। সেই আলোকেই আজকে (বুধবার) থেকে অফারটি বন্ধ করা হয়েছে।

অ্যাপ চালুর সময় বিকাশের প্রধান নির্বাহী কামাল কাদির বলেন-অ্যাপ আনতে আমরা সময় নিয়েছি। আমরা চাচ্ছিলাম- আগে সাধারণ মানুষের স্মার্টফোন সম্পর্কে ভালো ধারণা তৈরি হোক। আমরা যদি ২০১১ সালেই অ্যাপ আনতাম তাহলে হয়তো আমাদের সাধারণ মানুষকে অ্যাপ সম্পর্কে আগে পড়িয়ে নিতে হতো।

তিনি বলেন, সব ধরনের মানুষ সম্পর্কে গবেষণা করেই এই অ্যাপ তৈরি করা হয়। এখানের শিক্ষিত শ্রেণির মানুষের জন্য যেমন সুবিধা রাখা হয়েছে, তেমনি যারা কম অক্ষরজ্ঞান সম্পন্ন তাদের জন্য ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বাংলা ছাড়াও ইংরেজি ভাষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ‘ছবি ও লেখা সমৃদ্ধ এই অ্যাপে ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্স বা মৌখিক নির্দেশনারও সুবিধা আছে।

অর্থাৎ যেকোনও লেনদেনের ক্ষেত্রে কি পদক্ষেপ নিতে হবে, তা সুনির্দিষ্ট ধাপে গ্রাহকের পছন্দ অনুযায়ী বাংলা বা ইংরেজি ভাষায় নির্দেশনা দেয় এই অ্যাপ।’ কামাল কাদির বলেন, বিকাশে লেনদেনের ক্ষেত্রে এখন আর প্রাপকের নম্বর টাইপ করার দরকার নেই। বিকাশ অ্যাপে সেন্ড মানি, বাই এয়ারটাইম (মোবাইলে রিচার্জ) ও রিকোয়েস্ট মানি লেনদেনের সময় সরাসরি কন্ট্যাক্ট লিস্ট নম্বর নেয়া যাবে। ফলে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা নেই। ভুল এড়াতে রাখা হয়েছে কিউআর কোড ব্যবস্থাও।