বিতর্কিত আউটের খল-নায়কের নাম থার্ড আম্পায়ার রড টাকার

প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮ | আপডেট: ৯:১৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮

লিটনের মেইডেন সেঞ্চুরিএশিয়া কাপের ফাইনালে আজ মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-ভারত। বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে পাঁচটায় দুবাই স্টেডিয়ামে নেমেছে এই দুইদল। টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাসের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নামেন টাইগার অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। মাঠে নেমে শুরুটা দারুণ করে লিটন-মিরাজ। ব্যাটে নেমে দারুণ এক হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন দাস। লিটন-মিরাজের দুর্দান্ত জুটিতে শতক তুলে নেয় বাংলাদেশ।

কিন্তু ৩২ রান করে রায়ডুকে ক্যাচ দিয়ে কেদার যাদবের বলে ফেরেন মিরাজ। এরপর আবারো উইকেট হারায় বাংলাদেশ। চাহালের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ২ রান করে ফেরেন ইমরুল কায়েস। এরপর বোমরাহর ক্যাচে কেদার যাদবের বলে ৫ রান করে ফেরেন মুশফিক।

এরপর ২ রানে রান আউটের শিকার হয়ে ফেরেন মিথুন। তবে এরপরেই দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি হাঁকান লিটন। ৮৭ বলে ১১ চার ও ২ ছয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন। কিন্তু বেশিক্ষণ মাঠে থাকতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ। কুলদীপ যাদবের বলে বোমরাহকে ক্যাচ দিয়ে ৪ রান করে ফেরেন তিনি।

এরপর কুলদীপ যাদবের বলে ১২১ রানে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন লিটন। তবে আউট একে বারে বিতর্কিত। এতে আরও প্রমানিত ভারতের বিপক্ষে আবারও আম্পায়ারের বিমাতাসুলভ আচরণ। আর এর শিকার হলো বাংলাদেশ। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লিটন দাসকে কোনোভাবেই যখন বোলাররা পরাস্ত করতে পারছিল না ভারতীয় বোলাররা।

লিটন দাস চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে সেঞ্চুরি করা ওপরই সেই খড়্গ নেমে এল তার বিরোদ্ধে। ৪১তম ওভারের শেষ বলে (কুলদীপ যাদবের) এগিয়ে মারতে চেয়েছিলেন লিটন। রিপ্লাইয়ে দেখা গেছে, প্রথম পর্যায়ে পা ঠিক না থাকলেও ধোনি বল স্ট্যাম্পিং করার আগে নিরাপদে পা ছিল লিটন দাসের। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে থার্ড আম্পায়ার লিটন দাসকে আউট ঘোষণা করেন।

‘বেনিফিট অব ডাউট’ ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায়। কিন্তু এমন সিদ্ধান্ত ক্রিকেটে প্রথমবার ঘটলো লিটনকে দিয়ে। ‘বেনিফিট অব ডাউট’ নামে যে নিয়ম আছে আইসিসির বাইলজে সেটা আজ ভুল প্রমাণিত হলো বাংলাদেশ-ভারতের ম্যাচে।

সাধারণত সিদ্ধান্ত ব্যাটসম্যানদের পক্ষে যাওয়ার কথা সেই সিদ্ধান্ত গেল বোলার কুলদ্বীপ যাদবের পক্ষে। থার্ড আম্পায়ার রড টাকারের দেয়া এমন সিদ্ধান্তে ফুঁসে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।

এ বিতর্ক শুরু বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে। এরপর নিদাহাস ট্রফির ফাইনালেও বাংলাদেশকে হজম করতে হয়েছিল বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। আর আজ আবারও তেমন কিছুই হজম করতে হচ্ছে এশিয়া কাপের ফাইনালে। অস্ট্রেলিয়ান এই আম্পায়ার সিদ্ধান্ত জানাতে প্রায় তিন মিনিটের মতো সময় নেয়। অবশেষে জায়ান্ট স্ক্রিনে লাল রং জ্বলে আউটের ঘোষণা দেয়া হয়।