বিদ্যালয়ে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দুই ছাত্রের দ্বন্দ্বে ছাত্রের বাবার কাণ্ড!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫২:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮

টিবিটি দেশজুড়েঃ বিদ্যালয়ে দুই ছাত্রের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাধে। এর জেরে এক ছাত্রের বাবা বহিরাগত নিয়ে সেই বিদ্যালয়ে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় দশম শ্রেণির পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলায় চরচান্দ্রা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে।

বিদ্যালয়ের একাধিক সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার উপজেলার কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের চরচান্দ্রা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আজিজুলের সাথে ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুয়েল রানার তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দ্বন্দ্ব বাধে। তাৎক্ষণিকভাবে শিক্ষকরা দুজনের বিরোধের মিমাংসা করে দেন।

বুধবার সকালে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুবায়ের বিদ্যালয়ে আসার পর ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুয়েল রানা ৪/৫ জন বহিরাগত বন্ধু নিয়ে বিদ্যালয়ে ঢুকে জুবায়েরকে বিভিন্ন হুমকি দেয়। জুবায়ের শিক্ষকদের বিষয়টি জানালে শিক্ষকরা জুয়েল রানাকে মিমাংসা করে দেয় এবং বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ব্যাপারটা আগামীকাল সকালে আবার মিমাংসার আশ্বাস দেয়ার পরেও শিক্ষকদের সাথে অসৎ আচরণ করে বিদ্যালয় থেকে চলে যায় জুয়েল রানা।

এ ঘটনার পর দুপুরে জুয়েল রানার বাবা মজিবর মল্লিক ছেলে জুয়েল রানাসহ ৫/৬ জন বহিরাগত নিয় বিদ্যালয়ে ঢুকে ক্লাস চলাকালিন অবস্থায় শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়। এতে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুবায়ের হোসেন, আজিজুল হাকিম, সজিব, আয়তুননেছা ও ইমু আক্তার আহত হয়। গুরুতর আহতাবস্থায় জুবায়ের হোসেনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

চরচান্দ্রা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) খলিলুর রহমান বলেন, ‘দুই শিক্ষার্থীর মধ্যকার বিরোধ আমরা মিমাংসা করে দিয়েছিলাম। কিন্তু দুপুরে ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুয়েল রানার বাবা মজিবর মল্লিকসহ ৫/৬ জন বহিরাগত বিদ্যালয়ে ঢুকে ক্লাস চলাকালিন সময়ে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়। আমরা এ ঘটনার সঠিক বিচার দাবি করছি।’

শিবচর থানার ওসি জাকির হোসেন মোল্লা বলেন, ‘এ ব্যাপারে থানায় এখনো কোনো অভিযোগ দায়ের হয়নি। তবে অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা নেবো।’