বিপুল সংখ্যায় ‘অবৈধ অভিবাসী’ বাংলাদেশে ফিরছে: বিএসএফ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২০ | আপডেট: ১২:২৭:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২০
সংগৃহীত

ভারতে সিএএ পাশ হওয়ার পর থেকেই বিশাল সংখ্যায় বেআইনি বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী ভারত ছেড়ে নিজেদের দেশে ফিরছেন। এমনই দাবি করল বিএসএফ।

এই বিষয়ে বলতে গিয়ে বাহিনীটির এক শীর্ষস্থানীয় বিএসএফ কর্মকর্তা ভারতের সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘সিএএ পাশ হওয়ার পরেই ভারতে বসবাসকারী বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের মধ্যে দারুণ ভয়ের সঞ্চার হয়েছে।

ভারতের দক্ষিণ বঙ্গ ফ্রন্টিয়ারের বিএসএফ-এর আইজি ওয়াইবি খুরানিয়া এই বিষয়ে বলেন, ‘সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে অবৈধ বাংলাদেশী অভিবাসীরা অনেক সংখ্যায় ফিরে যাচ্ছে সেদেশে।

মূলত গত এক মাসে এই ফইরে যাওয়ার সংখ্যাটি বেড়েছে। শুধুমাত্র জানুয়ারিতেই আমরা ২৬৮ অবৈধ বাংলাদেশী অভিবাসীকে গ্রেফতার করেছি। তাদের বেশিরভাগই প্রতিবেশী দেশে পালানোর চেষ্টা করছিল।

নতুন পাশ হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধিত আইনের শর্ত অনুযায়ী ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ বা তার আগে বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে ধর্মীয় কারণে অত্যাচারিত হয়ে যে সমস্ত অমুসলিম শরণার্থীরা ভারতে গিয়েছে, তাঁদের প্রত্যেককেই নাগরিকত্ব দেয়া হবে।

অর্থাৎ, হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, বৌদ্ধ, পারসি বা জৈন ধর্মের যেই লোকেরা ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে থেকে ভারতে বসবাস করেছেন, তারা ভারতের নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন। বিলটি ৩১১-৮০ ব্যবধানে পাশ হয়।

গত বুধবার রাজ্যসভায় এটি পাশ হয় ১২৫-৮২ ব্যবধানে। তবে আইনটি সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে পাশ করলেও এটিকে বিভেদ সৃষ্টিকারী আখ্যা দিয়ে পথে নেমেছে বিরোধীরা।

আইন নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক চলতে থাকলেও আইন প্রনয়ণে কোনও বাধা আসবে বলে মনে করছেন না বিশেষজ্ঞরা। এই আইনের বিরোধিতা করলেও কংগ্রেস নেতা শশী থারুর ও কপিল সিব্বল বলেন যে, রাজ্যদের এই আইন না মানার পথ নেই।

কারণ নাগরিকত্ব বিষয়টি কেন্দ্রের অধীনস্থ। তাদের আরও মত, রাজনৈতিকভাবে ঐক্য দেখাতেই অনেক ক্ষেত্রে রাজ্যগুলি সিএএ বিরোধী রেজোলিউশন পাশ করাচ্ছে। তবে এতে আখেরে লাভ হবে না কোনও।

সূত্র: ইকোনোমিক টাইমস, ওয়ান ইন্ডিয়া, স্বরাজ ম্যাগাজিন।