বিবাহিত পুরুষদের বাইরে বিশ্বযুদ্ধ, ঘরে গৃহযুদ্ধ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:৪৫ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২০ | আপডেট: ২:৪৫:অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২০

করোনার এই সংকটকালে অন্য সবার মতো ঘরবন্দি ‘মিরাক্কেল’খ্যাত কমেডিয়ান আনোয়ারুল আলম সজল।

গত দুইমাস স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি তিনি। ঘরে থাকলেও হাস্যরসের মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করার জন্য সজল বেশ কিছু ভিডিও তৈরি করেছেন। সেখানে সমকালীন বিষয় নিয়ে বিদ্রূপও করেছেন।

গত মঙ্গলবার ‘আনলক ডাউন স্যাটায়ার শো’ নামে সজল তার ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন। নিজস্ব ভঙ্গিমায় ভিডিওতে কিছু করুণ চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন তিনি। তবে শুরুটা করেছেন হাস্যরসের মধ্য দিয়ে।

ভিডিওটির সংলাপে সজল বলেন, দুইমাস ধরে বাসায় শুয়ে আছি, কোনো কাজ নাই, কিছু করার নাই। শুইয়া থাকি বইস্যা থাকি, খাই-দাই-ঘুমাই কেউ কিছু কয়ও না।

আর আগে একদিন বাসায় বইয়্যা থাকলে বাপ-মায় দুইজনে মিল্ল্যা চিল্লাই তো— তুই সারাদিন বাসায় বইয়্যা থাকস! জীবনে করবি কী! এখন সারাদিন বাসায় বইয়্যা থাইক্যা দেশ ও পৃথিবীর মানুষকে রক্ষা করতেছি।

আগে বাসায় শুইয়্যা বইস্যা থাকলে মানুষ কইতো আইলসা। এখন বলে সচেতন নাগরিক। তাও তো আমরা ভালোই আছি।

ব্যাচেলর মানুষ। বাপের হোটেলে খাই-ঘুমাই। কিন্তু বিবাহিত পুরুষদের কথা চিন্তা করেন। তাদের তো করুণ অবস্থা! বাইরে বিশ্বযুদ্ধ, ঘরে গৃহযুদ্ধ।

ভিডিওটিতে একাধিক বিষয় তুলে ধরেছেন সজল। এজন্য কিছু স্থিরচিত্র ব্যবহার করা হয়েছে। যা বিষয় পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পাল্টে গেছে। দেশে করোনা পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে।

অন্যদিকে ঈদুল ফিতর কড়া নাড়ছে দরজায়। অনেক মানুষ এ পরিস্থিতিতেও শপিং করতে মার্কেটে যাচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে সজল তার সংলাপে বলেন, এই অবস্থায় শপিং করা কি খুব জরুরি?

একবার ভেবে দেখেন বাইরে থেকে ব্যাগের সঙ্গে ভাইরাস আসলো না তো! জীবনের চাইতে জামা কি খুব বেশি দরকার?

সবার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে সজল বলেন, আশেপাশে তাকিয়ে দেখেন, বাইরে কত অসহায় মানুষ ত্রাণের জন্য বইস্যা আছে। তাই সম্ভব হলে শপিংয়ের টাকা দিয়ে অসহায় গরিব মানুষকে বাজার করে দিন।

আর দেওয়ার সময় এইটারে প্লিজ ‘ত্রাণ’ বইলেন না, ‘উপহার’ বইলেন। আর উপহার দিয়া ছবি তুলতে যাইয়েন না। কারণ আপনি একজন মানুষকে সাহায্য করতেছেন। যারা সাহায্যের জন্য দেয় তারা দাতা। আর যারা ছবি তোলার জন্য দেয় তারা বিজ্ঞাপনদাতা। তাদের পাবলিসিটি দরকার।

ঈদুল ফিতরে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে সজল বলেন, নতুন জামার কষ্ট গায়ে লাগে না, খিদার কষ্ট পেটে লাগে। তাই আসুন অসহায়-দুঃস্থ মানুষের ঈদ এবার ভালো কাটুক আমার-আপনার মাধ্যমে।