বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সান্ধ্যকালীন কোর্স নিয়ে ক্ষুব্ধ রাষ্ট্রপতি

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৪৭:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯
মো. আবদুল হামিদ। ছবি: সংগৃহীত

দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সান্ধ্যকালীন শিক্ষা কার্যক্রমের প্রতি অনীহা প্রকাশ করে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আচার্য মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘দেশের অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এখন দিনে সরকারি আর রাতে বেসরকারি চরিত্র ধারণ করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সন্ধ্যায় মেলা জমে উঠে। এটা কোনোভাবেই কাম্য হতে পারে না।’

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ৫২তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে এইসব ইভিনিং শিক্ষা কার্যক্রমের প্রতি নিজের খারাপ লাগার কথা জানার রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষক আছেন উনারা নিয়মিত কোর্সের ব্যাপারে উদাসীন হলেও ইভিনিং কোর্স, ডিপ্লোমা কোর্স ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস নেয়ার ব্যাপারে খুবই সিরিয়াস। কারণ সেখানে তারা নগদ অর্থ পান।’

ইভিনিং কোর্সের অনিয়ম তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘শুনেছি, ইভিনিং কোর্সে একটা বিষয় নাকি ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস। সেখানে ২২টা কোর্স। প্রতিটি কোর্স করতে লাগে ১০ হাজার টাকা। এতে একজন শিক্ষার্থীর ২ লাখ ২০ হাজার টাকার বেশি খরচ হয়। সেই টাকার অর্ধেক শিক্ষকরা পায়। বাকিরা বিভাগ পায়। কিন্তু বিভাগের টাকা কী হয় আমি জানি না। আমি এ-ও শুনেছি, সেখানে শুধু পিএইচডি ডিগ্রিধারীরাই ক্লাস নেয়।’

বিশ্ববিদ্যালয়ে এসব সান্ধ্যকালীন শিক্ষা কার্যক্রমের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘মনে রাখবেন, বিশ্ববিদ্যালয় চলে জনগণের টাকা। সুতরাং জনগণের কাছে জবাবহিদিও করতে হবে।’