বিয়ের মাঝেই প্রতারণার শিকার নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০১৯ | আপডেট: ৬:২৪:অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০১৯

জমকালো আয়োজনেই গত মাসে নিখিল জৈনকে বিয়ে করেছেন কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা নুসরাত জাহান। সনাতনী রীতিতে তুরস্কের বোদরুম শহরে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান হয়। বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে কলকাতায় ফিরে নিখিলের আলিপুরের বাড়িতে ওঠেন টলিউডের সাংসদ অভিনেত্রী।

বর্তমানে আলিপুরের নিখিলের পুরনো বাড়ি সংলগ্ন একটি ফ্ল্যাটে থাকছেন এই দম্পতি। সেখানে বেশ জমিয়েই নিখিলের সঙ্গে সংসার করছেন নুসরাত। সবই ঠিক চলছে এর মধ্যে সম্প্রতি কলকাতার বিলাসবহুল হোটেলে হয়েছে তাদের রিসেপশন। এরই মধ্যে বিপদে পড়েছেন নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈন।

জানা গেছে, আর্থিক প্রতারণার শিকার হয়েছেন নিখিল জৈন। তাও আবার রিসেপশনের ঠিক আগে। যার জন্য থানা-পুলিশও করতে হয়েছে তাকে।

সাইবার ক্রাইম থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, মাসখানেক আগে একটি মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার সংস্থা থেকে ই-মেইল আসে নিখিলের কাছে। সেই মেলে তাকে একটা ভিভিআইপি নম্বর অর্থাৎ মোবাইলের বিশেষ নম্বর দেয়া হবে বলে জানানো হয়। এর জন্য নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করার কথাও জানানো হয়।নিখিলের কাছে দু-টি ই-মেইল আসে। নিখিল দাবি করেছেন, ই-মেইলে দেয়া অ্যাকাউন্ট নম্বরে তিনি ৪৫ হাজার রুপি ট্রান্সফারও করে দেন, কিন্তু তার কাছে কোনো ভিআইপি নম্বর আসেনি। কিন্তু এর পরে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন ওই ই-মেইল মেসেজটি আদতে ভুয়ো।

যে মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডারের নামে ই-মেইল এসেছিল, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন ‘রঙ্গোলি শাড়ি’ সংস্থার ডিরেক্টর নিখিল। কিন্তু তারা স্পষ্টতই জানিয়ে দেয়, ওই ধরনের কোনো মেসেজ তারা পাঠায়নি। এর পরই সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।
সচরাচর কোনো মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানির বিশেষ নম্বর নিতে গেলে গ্রাহককে বাড়তি টাকা খরচ করতে হয়। এই নম্বরগুলো বিশেষ বৈশিষ্টযুক্ত হওয়ায় ভিভিআইপি নম্বর বলা হয়। সেই ফাঁদেই পা দিয়েছিলেন নিখিল। জানা গেছে, আসলে এরকম একটি চক্র রয়েছে, যারা এইভাবে ফাঁদ পেতে টাকা নিচ্ছে।