বিয়ের ২২ মাসেও স্পর্শ করতে দেয়নি স্ত্রী, স্বামীর আত্মহত্যা

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৩৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০২০ | আপডেট: ৯:৩৮:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০২০

২২ মাসের বিবাহিত জীবন। এর মধ্যে একবারও যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতে দেননি স্ত্রী। সেই কারণেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন এক ব্যক্তি। পুত্রবধূর বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ মৃতের মায়ের। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হল বধূর বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ভারতের আহমেদাবাদের শাহেরকটডা পুলিশ মানিনগরের ওই নারীকে আটক করেছে। মৃতের মায়ের অভিযোগর ভিত্তিতেই অভিযুক্ত গীতা পারমারকে আটক করা হয়।

পুলিশ বলছে, মৃত সুরেন্দ্র সিনহা রেলে চাকরি করতেন। ২০১৮ সালের অক্টোবরে তাদের বিয়ে হয়। এর আগে ২০১৬ সালে সুরেন্দ্রর প্রথম স্ত্রীকে তালাক দেন। এদিকে গীতা আরো দুইবার তালাকপ্রাপ্তা।

মৃতের মা অভিযোগে বলেছেন, আমার ছেলে আর তার বউ আলাদা বিছানায় ঘুমাতো। এ ব্যাপারে আমার ছেলের কাছে জানতে চাইলে সে বলেছে, স্বামী হিসেবে সে কোনো অধিকারই পায়নি।

তিনি আরো বলেছেন, স্ত্রীর কাছ থেকে অধিকার না পেয়ে আমার ছেলে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিল। এছাড়া যে কোনো সামান্য ইস্যু নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো। কিছু হলেই গীতা বাপের বাড়ি চলে যেত। এসব সহ্য করতে না পেরে আমার ছেলেটা আত্মহত্যা করল।

সূত্র: ইন্ডিয়াটাইমস।