বি. চৌধুরী,কামালকে কাদেরের সতর্কতা

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ৪:২৭:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮

টিবিটি রাজনীতিঃগণফোরাম ও যুক্তফ্রন্টের একসঙ্গে কাজ করার ঘোষণার পরদিনই তাদেকে সতর্ক করেছেন ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, অহিংস আন্দোলনে কোনো বাধা নেই, তবে সহিংসতা করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচন ও আন্দোলন নিয়ে গণফোরাম ও যুক্তফ্রন্টের সমঝোতা হয়েছে মঙ্গলবার রাতে। আর বুধবার এই উদ্যোগ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক রাজধানীর শ্যামলীতে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ১৪ তলা আবাসিক ভবন নির্মাণের উদ্বোধন করতে যান তিনি।

৯১ কোটি টাকায় দুই বছরের মধ্যে ভবনের কাজ শেষ হবে। এতে সড়ক বিভাগের কর্মকর্তাদের আবাসন সমস্যার সমাধান হবে। এ সময় কাদের কথা বলেন আগের রাতে যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরামের ‘জাতীয় ঐক্য’ নিয়ে।

ভোটের রাজনীতিতে এই জোটের আদৌ কোনো প্রভাব আছে কি না, এ নিয়ে প্রশ্ন আছে। তারপরেও এই জোটের উদ্যোক্তারা তুমুল আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন।

এমনকি বিএনপি জোটবদ্ধ হওয়ার প্রস্তাব দিলে তিনশ আসনের মধ্যে ১৫০টি আসনে চেয়েছে যুক্তফ্রন্ট। আবার কামাল হোসেন বিএনপিকে শর্ত দিয়েছেন আলোচনা হতে পারে জামায়াতকে ছেড়ে আসলে।

গত নভেম্বরে যুক্তফ্রন্টের ঘোষণা দেয়া হয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বাইরে তৃতীয় শক্তি হওয়ার বাসনার কথা বলে। সে জোটে থাকার কথা ছিল কামাল হোসেনেরও। তবে তিনি বিদেশে অবস্থানের সময় তাকে বাদ দিয়ে জোটের ঘোষণায় মনক্ষুণ্ন হন আর কামাল হোসেন না থাকায় যুক্তফ্রন্ট ছেড়ে যান কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের আবদুল কাদের সিদ্দিকী।

এর মধ্যে ১৯ এবং ২৮ আগস্ট যুক্তফ্রন্ট ও কামাল হোসেনের আলোচনায় দুই পক্ষ কাছাকাছি এসেছে। আগের রাতের আলোচনায় আগামী দিনে আন্দোলন-সংগ্রামে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে একসঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্তও হয়েছে। গঠন হয়েছে কমিটি।

‘অবাধ ও সুষ্ঠু’ নির্বাচনের জন্য আগামী মাস থেকে আন্দোলন করতে চায় যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরাম। এই বিষয়টি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘অহিংস আন্দোলনে বাধা নেই, সহিংস আন্দোলন করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

নবগঠিত জাতীয় ঐক্যের নেতাদের উদ্দেশ্যে করে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘আপনাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে আন্দোলন করার দরকার নাই। আগামী নির্বাচন হবে সবার কাছে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন। আর আন্দোলন করলে অহিংস আন্দোলন করবেন যাতে জনগণের জনমালের কোনো ক্ষতি না হয়।’

‘ভোট সুষ্ঠু করতে গ্রেপ্তার চলবে’

জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু করতে মামলার আসামিদেরকে গ্রেপ্তার থামবে না বলেও জানিয়ে দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গণহারে গ্রেপ্তারের বিষয়ে বিএনপির আশঙ্কা নিয়েও কাদেরকে প্রশ্ন করা হয়। জবাবে তিনি বলেন, ‘যারা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নেতিবাচক রাজনীতি করবে এবং যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করবে, বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়বে, আগে যাদের নামে মামলা আছে, এখন অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে, নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হবে।’

বিএনপির আন্দোলনের হুমকি নিয়েও কথা বলেন কাদের। বলেন, ‘আমি বিএনপিকে বলতে চাই যে, ক্ষমতাকেন্দ্রীক যে ময়ূর সিংহাসনের স্বপ্ন দেখছেন তা অচিরেই তাসের ঘরের মতো ভেঙে যাবে।’

‘যারা নয় মাসে আন্দোলন করতে পারে নাই, তারা তিন মাসে কীভাবে আন্দোলন করবে? জনগণ তাদের কথা কীভাবে বিশ্বাস করবে?’