বুদ্ধির জোরে বেঁচে গেলেন নির্জন দ্বীপে আটকেপড়া ৩ নাবিক

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:২৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২০ | আপডেট: ৪:২৯:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২০

বিচ্ছিন্ন, জনমানবহীন একটি দ্বীপ, আর তাতেই আটকে পড়েছিলেন তিন নাবিক। সেখান থেকে তাঁদের ঘরে ফেরা কোনও ভাবেই সম্ভব ছিল না। কিন্তু বালিতে বিশাল বিশাল তিনটি অক্ষর শেষ পর্যন্ত তাঁদের প্রাণ বাঁচিয়ে দিল। না হলে তাঁদের ওই নির্জন দ্বীপেই আটকে থাকতে হত।

অস্ট্রেলিয়ার উত্তরে পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অনেক দ্বীপ নিয়ে গঠিত মাইক্রোনেশিয়া দেশ। সেই দেশেরই তিন নাবিক বেরিয়েছিলেন নৌকা নিয়ে। কিন্তু নির্জন পিকেলট দ্বীপের কাছে গিয়ে তাঁদের নৌকার জ্বালানি শেষ হয়ে যায়। তাঁরা আটকে পড়েন ওই দ্বীপে। কারও সঙ্গে যোগযোগ করারও কোনও উপায় ছিল না তাঁদের কাছে। এই অবস্থায় কেটে যায় তিন দিন।

নাবিকরা যখন বুঝতে পারেন- বাইরে থেকে কোনো সাহায্য না পেলে তাদের এখান থেকে বেঁচে ফেরা অসম্ভব। হঠাৎ মাথায় বুদ্ধি এলো– তারা দ্বীপের সৈকতে বালিতে গর্ত করে ইংরেজিতে বিশাল বিশাল তিনটি অক্ষর দিয়ে ‘এস ও এস’ (সেভ আওয়ার সোলস) বার্তা ফুটিয়ে তোলেন।

তিন দিন আগে তারা যেখান থেকে যাত্রা শুরু করেছিলেন, সেখান থেকে প্রায় ১৯০ কিলোমিটার দূরে আটকে থাকায় তাদের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

তার পরই গুয়ামের প্যাসিফিক রেসকিউ অ্যান্ড কোঅর্ডিনেশন সেন্টার সতর্কতা জারি করে। শুরু হয় অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকার সামরিক বিমানের মাধ্যমে তল্লাশি।

তারাই বালির মধ্যে এসওএস বার্তা দেখতে পায়। খবর যায় অস্ট্রেলিয়ার কর্তৃপক্ষের কাছে। ক্যানবেরা থেকে হেলিকপ্টার গিয়ে ওই তিন নাবিককে পরে উদ্ধার করে আনে।