বুয়েট চাইলে সেখানে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৫:২১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৬:২৮:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০১৯

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) কর্তৃপক্ষ যদি চায় তারা সেখানে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ বৃধবার (৯ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে গণভবনে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত সফর নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে একথা জানান প্রধানমন্ত্রী।

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে আন্দোলন চলছে এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ আছে। বুয়েট চাইলে তারাও নিষিদ্ধ করতে পারে। আমরা এতে হস্তক্ষেপ করবো না।

তিনি আরও বলেন, ১৯৭৮ সালে জিয়াউর রহমান ছাত্র সংগঠনগুলোকে রাজনৈতিক দলের আওতায় এনেছিলেন। এখন ছাত্ররাজনীতিকে আবারও আগের মতো স্বাধীন সংগঠন ঘোষণা করা হবে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের তালিকা আছে, যা অন্য দলগুলোর নেই। ছাত্রলীগ আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন নয়।

তিনি বলেন, মাথা থাকলে মাথাব্যথা তো হবেই। যারা উড়ে এসে বসে, তাদের দেশের চিন্তা থাকে না। ছাত্ররাজনীতি থেকেই ধীরে ধীরে চরিত্র গঠন হয়। আদর্শ গড়ে ওঠে। দক্ষ নেতৃত্ব উঠে এসেছে ছাত্ররাজনীতি থেকেই।

বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে আন্দোলন চলছে- এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ আছে। বুয়েট চাইলে তারাও নিষিদ্ধ করতে পারে। আমরা এতে হস্তক্ষেপ করবো না।

এসময় সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা বের করে দেন, কোথায় কোথায় অনিয়ম হচ্ছে। আমি কোনো দলটল বুঝি না।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার পর সঙ্গে সঙ্গে দোষীরা গ্রেফতার হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, প্রাকৃতিক গ্যাস নয়, ভারতে রপ্তানি হবে আমদানি করা গ্যাস। আর আমদানিকৃত এসব এলপিজি দেয়া হবে ভারতের ত্রিপুরায়।