বোলারদের ১৪ উইকেট তোলার দিনে বিপদে পাকিস্তানও

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৭:৪১:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়েও স্বস্তিতে নেই পাকিস্তান। করাচি টেস্টের প্রথম দিন শেষ বেলায় ব্যাটিংয়ে নেমে হারিয়ে ফেলেছে চার উইকেট। ছোট পুঁজি নিয়েও লিডের আশা জাগিয়েছে সফরকারীরা।

৪ উইকেটে ৩৩ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে বাবর আজমের দল। এখনও ১৮৭ রানে পিছিয়ে স্বাগতিকরা। আজহার আলি ও ফাওয়াদ আলম, দুজনেই ৫ রানে ব্যাট করছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় ওপেনার ইমরান বাট ও স্পিনার নওমান আলীর। প্রোটিয়াদের আগেভাগে গুটিয়ে দিতে বল হাতে ডিন এলগার ও অধিনায়ক কুইন্টন ডি ককের গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট নেন নওমান। অভিষেকটা ভালোই হয়েছে ৩৪ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনারের। কিন্তু ইমরান নিজের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ, মাত্র ৯ রান করেছেন।

কাগিসো রাবাদা নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে ওপেনার আবিদ আলীকে (৪) বোল্ড করেন। পরের ওভারে এই পেসার ইমরানকে (৯) বদলি ফিল্ডার কিগান পিটারসনের ক্যাচ বানান। ১৫ ওভারে ২ ওপেনারের বিদায়ের পর সতর্ক হলেও বিপদ কাটেনি পাকিস্তানের। ৭ রানে কেশব মহারাজের বলে এলবিডাব্লিউ হন অধিনায়ক বাবর।

নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নেমে চার বল খেলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। তাকে রানের খাতা খুলতে দেননি প্রোটিয়া পেসার আনরিখ নর্টিয়ে। ২৭ রানে চার ব্যাটসম্যানকে হারায় স্বাগতিকরা। ক্রিজে আছেন আজহার আলী ও ফাওয়াদ আলম, দুজনে পাঁচ রানে অপরাজিত।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে সুবিধা করতে পারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা। শাহীনের পেসের সঙ্গে নওমান ও ইয়াসির শাহর স্পিন বিষে প্রত্যাশিত স্কোর জমা হয়নি বোর্ডে। ওপেনার ডিন এলগার ইনিংস সেরা ৫৮ রান করেন। ফাফ দু প্লেসির (২৩) সঙ্গে তার ৪৫ রানের জুটি ছিল সফরকারীদের প্রথম ইনিংসের সর্বোচ্চ।

১৩৬ রানে ৫ উইকেট হারানো দক্ষিণ আফ্রিকাকে ষষ্ঠ উইকেটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪২ রান এনে দেয় তেম্বা বাভুমা (১৭) ও জর্জ লিন্ডের (৩৫) জুটি। বাভুমা রান আউট হলে এই জুটি ভাঙে। ৪১ রানের ব্যবধানে শেষ পাঁচ উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

ইয়াসির তিন উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সেরা বোলার। দুটি করে পান শাহীন ও নওমান।