ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সমাবেশেও আসেননি মামুনুল হক

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০২০ | আপডেট: ৬:১৫:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০২০
ফাইল ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশে আসেননি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতা করে সমালোচিত হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক।

মামুনুল হক পুলিশি বাঁধায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছে খেলাফত মজলিশ। তবে পুলিশ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

উল্লেখ্য, আগের দিন শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক ধর্মীয় মাহফিলে বক্তব্য রাখার কথা থাকলেও উদ্ভূত পরিস্থিতিতে মাওলানা মামুনুল হক মাহফিলে যাননি।

শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে মিছিল ও রাস্তা অবরোধ করে মামুনুল হকের সমর্থকরা।

খেলাফত মজলিশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাও. মঈনুল ইসলাম জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসার পথে ভৈরবেই পুলিশ মাও.মামুনুল হককে আটকে দিয়েছে।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের নায়েবে আমির হাফেজ মাও. জুবায়ের আহমেদ আনসারি করোনাকালীন লকডাউনের সময় মৃত্যুবরণ করেন। আজ শনিবার সকালে শহরের বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খা পৌর মিলনায়তনে মাও. জুবায়ের আহমেদ আনসারি স্মরণে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন খেলাফত মজলিশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখা।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম-মহাসচিব মাও.মামুনুল হকের উপস্থিত থাকার কথা অনুষ্ঠানের লিফলেট ও প্রচারপত্রে উল্লেখ করা হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের আমির শায়খুল হাদিস মাও. ইসমাইল নূরপূরী।

এদিন সকাল থেকে যথাসময়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়ে দুপুর পর্যন্ত চললেও সেখানে উপস্থিত হননি মাও. ইসমাইল নূরপূরী ও মাও.মামুনুল হক। পরে জেলা খেলাফত মজলিশের সভাপতি মাও. আবদুল আজিজ খন্দকারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাও. মঈনুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হন কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাও. রেজাউল করিম জালালী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রইছ উদ্দিন জানান, মাও.মামুনুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসেননি। তাকে কেউ আটকে দিয়েছে কিনা এ তথ্য আমাদের জানা নেই।