ব্রিটিশ মডেলের পুরুষে আস্থাহীনতা, কুকুরকে জীবনসঙ্গী হিসেবে বরণ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৫৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২১ | আপডেট: ৭:৫৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২১

৪৯ বছর বয়সী ব্রিটিশ মডেল ও সাঁতারু হোড ঢাকঢোল পিটিয়ে টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করেই কুকুরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলেন।

প্রথাগত সব ধ্যানধারণা ভেঙে একসময়ের সাড়াজাগানো হোড গাঁটছড়া বেঁধেছেন তার পোষা কুকুরের সঙ্গে! পাঁচ বছরেরও বেশি সময় কুকুরটিকে লালনপালন করছিলেন হোড। নাম রেখেছেন লোগান। সেই লোগানই এখন হোডের জীবনসঙ্গী। পুরুষের প্রতি আস্থাহীনতা থেকে তার এই সিদ্ধান্ত।

আশির দশকের হাজারও পুরুষের হৃদয়ে ঝড় তোলা এই মডেলের কাণ্ড দেখে অনেকেই হতভম্ব। বিয়ের পোশাকে স্বামী-স্ত্রীকে একসঙ্গে দেখে বিস্ময়ে বিমূঢ় ছিলেন ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া হাজারও দর্শক!

বিয়ের পর ঘরে ফিরে পরস্পরকে আলিঙ্গন করে চুমু খান তারা। আর গভীর চুম্বনের সেই দৃশ্য শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এলিজাবেথ হোড এই ব্যতিক্রমী সিদ্ধান্তে প্রশংসা যেমন কুড়িয়েছেন, অনেকেই আবার সমালোচনাতেও সরব হয়েছেন।

এমন একটি সিদ্ধান্ত নেয়ার পেছনের কারণটাও অবলীলায় জানিয়েছেন হোড। বলেছেন, ২২১ বার ডেটিংয়ে গিয়েও মনের মতো কাউকে খুঁজে পাননি তিনি। হতে হতেও বিয়ে ভেঙেছে চারবার। শেষমেশ নিজের প্রিয় পোষা কুকুরকেই জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন।

‘স্বামী’ লোগান মূলত গোল্ডেন রিট্রিভার প্রজাতির কুকুর। প্রেমিকদের মুখ ফিরিয়ে নেয়ার কষ্টের দিনগুলোতে নিঃসঙ্গ হোডের পাশে ছিল লোগান। বিষণ্ণ জীবনে নিজের অজান্তেই কয়েকবার দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিলেন হোড। আর সেই সময় ত্রাতা হয়েছে লোগানই।

তাই লোগানকে জীবনসঙ্গী হিসেবে বরণ করার সময় কৃতজ্ঞতা ঝরে হোডের কণ্ঠে। বলেন, ‘সে (লোগান) আমার মন ভালো রাখত, কষ্টের সময় সান্ত্বনাও দিয়েছে।’

জীবনের বাঁকে সঙ্গী হিসেবে কেউ পাশে থাকবে এটাকে বড় করে দেখছেন সাবেক এই মডেল। তিনি বলেন, ‘জীবনসঙ্গীর কাছে এর চেয়ে বেশি কিছু আমি আশা করি না।’

আর তাই ভালোবাসার অনুভূতি নিয়ে লোগানকে আগলে রাখতে চান তার নববিবাহিত ‘স্ত্রী’।