বড়লেখায় অজ্ঞাত মহিলাসহ ৩ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

আব্দুর রব আব্দুর রব

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:৫৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫৯:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০১৯
মৌলভীবাজার জেলা

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় শনিবার অজ্ঞাত পরিচয়ের এক মহিলাসহ ৩ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

এরা হলেন উপজেলার দাসেরবাজার ইউপির চানপুর গ্রামের মৃত রমনি দাসের ছেলে কৃষক রনজিত দাস (৫০) ও তালিমপুর ইউপির সরুয়ামাঝি গ্রামের মৃত নূর উদ্দিনের ছেলে সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকর (৪৫)। অন্যদিকে অজ্ঞাত নারীর লাশ দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের চুকারপুঞ্জি এলাকার একটি ছড়া থেকে উদ্ধার করা হয়।

বিকেলে পুলিশ ৩ জনের লাশ ময়না তদন্তের জন্য লাশ মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তালিমপুর ইউপির সরুয়ামাঝি গ্রামের সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকরের লাশ ঘরের পাশের আম গাছের ডালের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। সে শুক্রবার রাতের খাবার খেয়ে পরিবারের সবার সাথে ঘুমিয়ে ছিলেন। খবর পেয়ে শনিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

শনিবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে উপজেলার দাসেরবাজার ইউপির চানপুর এলাকায় নদীর পাড়ের একটি বরুণ গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় কৃষক রনজিত দাসের লাশ উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার রাত দুইটার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। শনিবার সকালে তাকে খোঁজতে গিয়ে নদীর পাড়ে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বজনরা তার লাশ দেখতে পায়।

বেলা ১১টার দিকে উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপির চুকারপুঞ্জি এলাকার মাধবছড়া খালের পানি থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ের এক মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, ওই নারী মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।

অজ্ঞাতনামা নারীসহ ৩ ব্যক্তির লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে থানার পুলিশ ওসি (তদন্ত) মো. জসীম জানান, লাশ উদ্ধারের ঘটনায় তিনটি পৃথক অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। স্থানীয়দের তথ্যমতে অজ্ঞাতনামা মহিলা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। ময়না তদন্তের জন্য লাশগুলো মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।