ভাবীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন!

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ | আপডেট: ৪:১১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯
প্রতীকী ছবি

নজরুল ইসলাম নাহিদ, সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: সোমবার টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রবাসির স্ত্রী আফরোজা আক্তার (৩০) মারা যান। মৃত্যুর এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাচাত ভাই আবদুর রশিদ ও জাবেদ আলীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

এক পর্যায়ে রশিদের ছুরিকাঘাতে জাবেদ আলী (২৫) ও তার বাবা জয়নাল আবেদিন গরুতর আহত হন।ওই রাতেই গুরুতর আহত অবস্থায় জাবেদ আলী ও জয়নাল আবেদীনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১০ সেপ্টেম্বর বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জাবেদ আলী মারা যান। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বহেড়াতৈল ইউনিয়নের ঘাটেশ্বরী গ্রামের সৌদি প্রবাসী আবদুর রহিমের স্ত্রী আফরোজা আক্তার (৩০) গত ৯ সেপ্টেম্বর বিকেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে হয়ে মারা যান।

ওইদিন রাত সাড়ে নয়টার দিকে নিহতের দেবর আবদুর রশিদের বিদ্যুৎ লাইন থেকেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে দাবি করে চাচাতো দেবর জাবেদ আলীর সঙ্গে আবদুর রশিদের ঝগড়া বাধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে আবদুর রশিদ ঘর থেকে ছুরি এনে জাবেদ আলীর পেটে ঢুকিয়ে দেন।

এ সময় বাধা দিতে গেলে জাবেদ আলীর বাবা জয়নাল আবেদীনও ছুরির আঘাতে গুরুতর আহত হন। রাতেই গুরুতর আহত অবস্থায় জাবেদ আলী ও তার বাবা জয়নাল আবেদীনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১০ সেপ্টেম্বর বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জাবেদ আলী মারা যান।

বহেড়াতৈল ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ( ওয়ার্ড নম্বর ১,২,৩) মোখলেছা আক্তার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহত জাবেদ আলীর লাশের ময়নাতদন্ত শেষ করে রাতেই সখীপুরের ঘাটেশ্বরী তার নিজ গ্রামে এনে দাফন সম্পন্ন করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমির হোসেন বলেন- মামলার প্রস্তুতি চলছে। ময়নাতদন্তের কাগজপত্র পেলে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।