ভারতে এক বছরে ক্যান্সার রোগী বেড়েছে ৩ গুণ, ভয়াবহতার চরমে গুজরাট

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:১২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩, ২০১৯ | আপডেট: ৫:১২:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩, ২০১৯

ভারত জুড়ে ক্যান্সারে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা প্রতি এক বছরে ৩০০ শতাংশ করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে মুখের ক্যান্সার, সার্ভাইক্যাল ক্যান্সার, স্তন ক্যান্সারের মত ক্যান্সার। ন্যাশনাল হেল্থ প্রোফাইল-২০১৯ এর পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ন্যাশনাল হেল্থ প্রোফাইল এর তথ্য বলছে, ভারতে ২০১৭ থেকে ২০১৮-র মধ্যে প্রায় ৩২৪ শতাংশ ক্যান্সারে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইন্ডিয়া টাইমসের এক প্রদিবেদনে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৮ সালে দিল্লির রাজ্য সরকার চালিত ক্লিনিকে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগী এসেছে ৬ কোটি ৫০ লক্ষ। যার মধ্যে মুখের ক্যান্সার, সার্ভাইক্যাল ক্যান্সার, স্তন ক্যান্সারের মত ক্যান্সার রোগী এসেছে ১ কোটি ৬ লক্ষ।

২০১৭ সালে যেখানে দিল্লির NCD ক্লিনিকে ক্যান্সারের আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ৩৯ হাজার ৬৩৫ জন।

অন্যদিকে ২০১৭ সালে যেখানে মোট ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল সাড়ে তিন কোটি, তা ২০১৮ সালে বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণ ৬ কোটি ৬ লক্ষ NCD-তে।

চিকিৎসকদের মতে ক্যান্সারের এই বারবারন্তের কারণ প্রতিদিনের অনিয়ন্ত্রিত জীবন, খাদ্যাভ্যাস এবং প্রচুর পরিমাণে তামাকজাত পদার্থের সেবন ও মদ্যপান।

পরিসংখ্যান অনুসারে ক্যান্সারের এই ব্যাপক হারে বৃদ্ধির তালিকায় ২০১৮ সালের তথ্য বলছে প্রথম স্থানে রয়েছে গুজরাট। আর তার পর রয়েছে যথাক্রমে কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, তেলেঙ্গানা এবং পশ্চিমবঙ্গ।

তথ্য অনুসারে ২০১৭ সালে যেখানে গুজরাটে ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৯৩৯ জন তা ২০১৮ সালে এক লাফা বেড়ে হয়েছে ৭২ হাজার ১৬৯ জন। পাশাপাশি অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উত্তরপ্রদেশেও একই ভাবে ব্যপক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে ক্যান্সারের মত রোগ।