ভারতে মালিকের ওপর ক্ষেপে ৭০ লাখ রুপি চুরি বিশ্বস্ত কর্মীর

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ৬:২৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

ভারতে মালিকের ৮০ লাখ রুপির ডাকাতি ঠেকিয়ে মোটা অংকের পুরস্কার পাবেন বলে আশা করেছিলেন তার কর্মী। কিন্তু পুরস্কার হিসেবে মেলে একটি টি-শার্ট। কিছুদিন পর সুযোগ পেয়ে মালিকের ৭০ লাখ রুপি চুরি করে পালান তিনি।

গত ২৮ আগস্ট দিল্লিতে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম ‘আনন্দবাজার’।

মালিকের টাকা চুরি করে বন্ধু ইয়াকুবের সাহায্যে উত্তরাখণ্ডের নৈনিতালে পালিয়ে যান ধ্যান সিংহ বিস্ত নামের এই কর্মী। সম্প্রতি ইয়াকুবকে গ্রেপ্তার করা হলে তার কাছ থেকে পুরো ঘটনাটি জানতে পারে পুলিশ। ধ্যান সিংহকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইয়াকুবের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ধ্যান সিংহ মালিকের খুবই বিশ্বস্ত কর্মচারী ছিলেন। ব্যবসার প্রয়োজনে মোটা রুপির লেনদেন তার হাত দিয়েই করাতেন মালিক। শহরেরই একটি ব্যাংকে জমা দিতে ৮০ লাখ রুপি তার হাতে দেন মালিক। পথে ডাকাতদের কবলে পড়লে প্রাণপণ লড়ে ৮০ লাখ রুপি বাঁচান ধ্যান সিংহ।

আরও জানায়, ঘটনাটি জানিয়ে মালিকের হাতে অর্থ ফিরিয়ে দেন ধ্যান সিংহ। ভেবেছিলেন মালিক খুশি হয়ে তাকে মোটা অংকের পুরস্কার দেবেন। কিন্তু তার আশাভঙ্গ করে পুরস্কার হিসেবে মালিক একটি টি-শার্ট দেন! এতে মালিকের ওপর চটে যান তিনি। মনে মনে মালিককে উচিত শিক্ষা দেবেন বলে ঠিক করেন।

পুলিশ জানায়, কিছুদিন পর মালিক আবারও ধ্যান সিংহকে ৭০ লাখ রুপি দেন ব্যাংকে জমা দেয়ার জন্য। কিন্তু এবার ব্যাংকে জমা না দিয়ে মালিকের অর্থ নিয়ে বন্ধু ইয়াকুবের দোকানে আসেন বিশ্বস্ত কর্মী। সেখান থেকে ইয়াকুবের গাড়িতে নৈনিতাল পালান দুজন। কথামতো প্রথম দফার চার লাখ রুপি পেয়ে যান ইয়াকুব।

প্রমাণ লোপাট করতে দিল্লি এসে ইয়াকুব তার দোকানে রাখা ধ্যান সিংহের মোটরবাইক বিক্রি করতে গিয়ে ধরা পড়ে যান।

ইয়াকুবের বরাতে পুলিশ আরও জানায়, ধ্যান সিংহের তিন মেয়ে। তাদের বিয়ে নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় ছিলেন তিনি। একদিকে ডাকাতদের সঙ্গে লড়ে আহত হন, অন্যদিকে মালিকের ব্যবহারে খুব কষ্ট পান তিনি। একপর্যায়ে বন্ধুর সঙ্গে মিলে মালিকের টাকা চুরির ফন্দি করেন ধ্যান সিংহ।