মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারামের মেঝেতে ৩৫ হাজার কার্পেট

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০১৯ | আপডেট: ১২:০৬:পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০১৯
ছবিঃ সংগৃহিত

নতুন ৩৫ হাজার কার্পেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারামের মেঝেতে বিছানোর জন্য। ৯০ গজ লম্বা আয়তনের ১৪ হাজার কার্পেট মেঝেতে বিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আর ২১ হাজর কার্পেট আপাতত অব্যবহৃত রাখা হচ্ছে। মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর কার্যপরিচালনা পরিষদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের বরাতে তথ্যটি জানা গেছে।

রোববার (১০ মার্চ) এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বছরে পাঁচ বার মসজিদুল হারামের কার্পেটগুলো পরিবর্তন করা হয়। আলাদা ও নির্দিষ্ট বৃহৎ লন্ড্রিতে এগুলো সময়ানুবর্তিতায় বিশেষভাবে ধোয়া হয়।

জানা গেছে, দৈনিক কার্পেটগুলো পরিচ্ছন্নকরণ প্রকল্পে ২ হাজার ৮৭৪ জন কর্মকর্তা ও কর্মী নিয়েজিত রয়েছে। তারা সার্বক্ষণিক মসজিদুল হারামের কার্পেটগুলো পরিচ্ছন্ন ও সুগন্ধিযুক্ত রাখতে সচেষ্ট থাকেন।

মসজিদুল হারামের প্রতিটি তলা, আঙিনা ও শৌচাগার দৈনিক তিনবার পরিচ্ছন্ন করা হয়। ওমরাহ পালনার্থী, সাধারণ মুসল্লি এবং জিয়ারত প্রত্যাশীদের অসুবিধা না হওয়ার জন্য আলাদা আলাদা স্থান ও নির্ধারিত লোকবল নিয়ে কাজ করা হয়। তবে পরিচ্ছন্নতার বৃহৎ এ কাজ অত্যন্ত নিপুণতার সঙ্গে অল্প সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করা হয়।

যেভাবে কার্পেটগুলো ধোয়া হয়
মক্কা শহরের কুদাই এলাকায় অত্যাধুনিক লন্ড্রি সরঞ্জাম, উপকরণ ও উপাদানের মাধ্যমে কার্পেটগুলো ধোয়া হয়। সেখানে গুটানো কার্পেটগুলো দ্রুত নলাকার মেশিনের মাধ্যমে ধুয়ে পানি সরানো হয় এবং নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সংকুচিত করে রাখা হয়। তারপর সূর্যের উন্মুক্ত আলোতে শুকানোর ব্যবস্থা করা হয়।

সাধারণত অত্যাধুনিক লন্ড্রি সরঞ্জামগুলোর মাধ্যমে প্রতি ঘণ্টায় ১০০টি কার্পেট ধোয়ার সক্ষমতা রয়েছে।

এছাড়াও মসজিদুল হারামের বিভিন্ন তলা ও আঙিনা পরিচ্ছন্ন করতের এবং কাজের গুণমান ও গতি নিশ্চিত করতে ৪ হাজার ৮০৫টি অত্যাধুনিক যন্ত্র ব্যবহার করা হয়।

সংক্ষেপে মসজিদুল হারাম পরিচ্ছন্ন ও সুগন্ধিযুক্তকরণ
৩৫ হাজার কার্পেট
১৪ হাজার কার্পেট মসজিদুল হারামের বিভিন্ন তলা ও আঙিনায় বিছানো
২১ হাজার আপাতত মজুদ রাখা
১ শ সৌদি তরুণ পরিচ্ছন্নকরণ গাড়ী পরিচালনায়
২ হাজার ৮ শ ৭৪ কর্মকর্তা ও কর্মচারী পরিচ্ছন্নতা অভিযানে
৫ বার করে প্রতি বছর কার্পেটগুলো পরিবর্তন করা হয়