মন্দিরে পুরোহিতের লালসার শিকার তরুণী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:১২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২১ | আপডেট: ৭:১২:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২১

সিলেটের গোলাপগঞ্জের বাঘায় মন্দিরে এক তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এক পুরোহিতকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে উপজেলার বাঘা কালাকোনা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওই তরুণী ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য পুরোহিতের কাছে গিয়ে পুরোহিতের লালসার শিকার হয়েছিল বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

ভুক্তভোগির পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের কালাকোনা গ্রামে গিরিধারী জিও মন্দিরের পুরোহিত হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন গোবিন্দ দাস (৪৬)। তিনি টাংগাইল জেলার দেলদোহার থানার সিলিমপুর গ্রামের কালু চৌহানের ছেলে।

ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য ওই পুরোহিতের কাছে প্রায়ই যাওয়া আসা করতেন কালাকোনা এলাকার তরুণ-তরুণীসহ বিভিন্ন বয়সী হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা। মন্দিরের পার্শ্ববর্তী বাড়ির এক তরুণী গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যায় মন্দিরের পুরোহিত গবিন্দ দাসের লালসার শিকার হন।

পুরোহিত ও তার সহযোগী দিপংকর দেব তপন (৩৮) মেয়েটিকে মন্দির থেকে জরুরি কাজের কথা বলে মন্দিরের পাশে নিয়ে যায়। সেখানে তারা মেয়েটির মুখে চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করলে তরুণী চিৎকার দেয়।

এ সময় আশপাশ এলাকার লোকজন ও তরুণীর স্বজনেরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে তার তথ্য মতে মন্দিরের পুরোহিত গোবিন্দ দাসকে এলাকাবাসী আটক করে গণধোলাই দেয়। তিনি তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে তার সহযোগী দিপংকর দেব তপন পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গোবিন্দ দাস ও দিপংকর দেব তপন এর বিরুদ্ধে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন তরুণীর বাবা।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য সহযোগীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।