মমতার ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হলেন মনোজ তিওয়ারি

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫০ অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০২১ | আপডেট: ৫:৫০:অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০২১

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিটি সিদ্ধান্ত ব্যতিক্রমী। এবার মন্ত্রিসভায়ও কোনো চিত্রজগতের তারকাকে স্থান দেননি মমতা।

তবে ঠিকই আইপিএল তারকা মনোজ তিওয়ারিকে মন্ত্রী বানিয়েছেন। প্রথমবার নির্বাচনে জিতেই মন্ত্রী হয়ে গেলেন ভারতের এই সাবেক ক্রিকেটার।

আইপিএলে শাহরুখ খানের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সে (কেকেআর) বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সতীর্থ তিনি।

সোমবার কলকাতার রাজভবনে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মনোজ। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দপ্তর সামলাবেন তিনি। এর আগে এই দপ্তরের দায়িত্ব ছিল কেকেআর ও ভারতের আরেক সাবেক ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লার ওপর।

আপাতত নিজের ভাগ্যকে বিশ্বাসই করতে পারছেন না মনোজ, ‘এতজন বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্য থেকে মন্ত্রী নেওয়া হয়েছে মাত্র ৪৩ জনকে। এর মধ্যে আমি আছি। এটা আমার জন্য বিরাট পাওয়া। এত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে যে দিদি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) আমাকে ভেবেছেন, সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

ক্রিকেটকে এখনো পুরোপুরি বিদায় বলেননি মনোজ। তবে রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে যাওয়া মানে যে তাঁর মাঠে ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তা, সেটি জানা কথাই। তবে মনোজ নিজে মানতে নারাজ যে তাঁর ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গেছে, ‘আমি তো এখনো অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিইনি। হয়তো সামনে মাঠে নামব। তবে মন্ত্রিত্ব অনেক বড় দায়িত্ব। অনেক কঠিন দায়িত্ব। এত কাজ সামলে ক্রিকেট মাঠে নামার সময় থাকবে কি না, সেটা জানি না। দেখা যাক, আপাতত সামনে তো কোনো খেলা নেই।’

খেলার মানুষ তিনি, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হয়ে সেটির উন্নতিই হবে তাঁর মূল কাজ। পশ্চিমবঙ্গের খেলাধুলা উন্নয়নে ভূমিকা রাখার আগে মনোজের লক্ষ্য করোনার বিরুদ্ধে সপাটে ব্যাট চালানো, ‘খেলার মাঠের মানুষ আমি। অবশ্যই খেলাধুলার উন্নয়নে কাজ করব। সেটিই লক্ষ্য আমার। তবে এ মুহূর্তে খেলার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ করোনা মোকাবিলা। পশ্চিমবঙ্গ থেকে করোনাকে সুইপ করে তাড়াতে চাই। এটাই এখন মূল লক্ষ্য। প্রধান কাজ।’