মহাজোটেই থাকছে জাতীয় পার্টি : রুহুল আমিন

প্রকাশিত: ৮:৩১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০১৮ | আপডেট: ৮:৩১:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০১৮

মো. নাঈম হোসেন, দুমকি ও পবিপ্রবি প্রতিনিধি: “মহাজোট থেকে যে মার্কা দেয়া হবে আপনারা তাতেই ভোট দেবেন। আওয়ামী লীগের সাথে আমাদের কোন দূরত্ব সৃষ্টি হয়নি। জোট আরও বড় হতে পারে। তবে রাজনীতিতে শেষ কথা বলতে কিছু নেই। জোটের সমৃদ্ধি কত দূর যাবে তা এখনও বলার সময় আসেনি।” পটুয়াখালীর দুমকিতে নিজ এলাকায় উপজেলা জাতীয় পার্টি আয়োজিত এক কর্মী সভায় এসব কথা বলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার।

বৃহষ্পতিবার বিকেল ৫টায় দুমকির সিনেমা হল এলাকায় আয়োজিত কর্মি সভায় তিনি আরও বলেন, দেশের উন্নয়নে জাতীয় পার্টি সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের নেতৃত্ব কাজ করে যাচ্ছে।

এসময় তিনি জাতীয় পার্টির আমলে পটুয়াখালীতে হওয়া বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।

এছাড়াও তিনি বলেন, পদ্মা সেতু এবং লেবুখালী সেতুর কাজ শেষ হলে এ অঞ্চলে যোগাযোগ বিপ্লব ঘটবে। দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানের কথা এই এলাকার মানুষ আজীবন স্মরন করবে।

কর্মীসভায় রুহুল আমিন হাওলাদার পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শাহজাহান মিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আমি না আসতে পারলেও তিনি আমার জন্য সকলের কাছে গিয়ে ভোট চেয়েছেন। আমি তার এ অবদানের কথা সবসময় মনে রাখবো।

প্রধান অতিথির বক্তব্যের শুরুতেই রুহুল আমিন হাওলাদার দেশের স্বাধীনতা ও বাঙ্গালীর মুক্তির জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

এদিকে বিকেল ৫টায় কর্মীসভা শুরু হলে বৃষ্টি ও দুর্যোগপূর্ন আবহাওয়া উপেক্ষা করে বিভন্ন এলাকা থেকে মিছিলসহকারে হাজার হাজার নেতাকর্মী আসতে শুরু করলে কর্মীসভাটি বিশাল জনসভায় পরিণত হয়।

জেলা জাপার সভাপতি সুলতান আহমেদ হাওলাদের সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বরিশাল-৬ আসনের সংসদ সদস্য নাসরিন জাহান রত্না এমপি, জাপার কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মস্তফা, জেলা জাপার সাধারন সম্পাদক খায়রুল আলম মামুন ও সহসভাপতি মো. জাফরউল্ল্যাহ প্রমুখ।