মাউশির অফিস সহায়ক নিয়োগের ফল প্রকাশের দাবি

প্রকাশিত: ৬:৩০ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৩০:অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষার ফল প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন নিয়োগ প্রার্থীরা। মঙ্গলবার (১৪ মে) বিকেলে
জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে করেন তারা। নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষার দেড় বছর পরেও এখনো ফল পাননি বলে জানিয়েছেন প্রাথীরা।

সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থীরা জানান, বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ৬ বছর এবং মৌখিক পরীক্ষা নেয়ার পর ১ বছর ৬ মাস পেরিয়ে গেলেও ফল দিতে পারেনি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। একই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে অন্য সব পদে নিয়োগ শেষ হলেও অফিস সহায়ক পদের ফল প্রকাশ করা হচ্ছে না। ফল প্রকাশের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, নতুন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। এছাড়া কয়েকবার মানববন্ধন করা হয়। এরপরও ফল প্রকাশ হয়নি।

উল্লেখ্য, ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দের ৭ মার্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির শূন্যপদ পূরণের লক্ষ্যে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়।

একই বছর ১৪ জুন প্রথম পর্যায়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলে তা দুর্নীতির অভিযোগে বাতিল হয়। নিয়োগের পরীক্ষা গ্রহণের সঙ্গে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডার সমিতির তৎকালীন কতিপয় নেতা জড়িয়ে পড়েন। দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে জানতে চাওয়া হয় বিস্তারিত। কিন্তু পাঁচ বছরের দুদকের ওই চিঠির জবাব দেয়নি শিক্ষা অধিদপ্তর।

পরে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ৭ জুলাই ৪র্থ শ্রেণির অফিস সহায়ক পদে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ৩ হাজার ৮৭৮ জন লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ নভেম্বর মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। পরীক্ষা শেষ হওয়ার দেড় বছরের বেশি পেরিয়ে গেলেও এখনো ফল প্রকাশ করা হয়নি। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির অন্য সব পদের নিয়োগ সম্পন্ন হলেও অফিস সহায়ক ও বুক সর্টার পদের নিয়োগ আটকে রয়েছে।