‘মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন মমতা’

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: 1:01 AM, July 23, 2019 | আপডেট: 1:01:AM, July 23, 2019
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

রোববার বিজেপির বিরুদ্ধে শহিদ সমাবেশের মঞ্চ থেকেই তোপ দেখিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসাথে গেরুয়া শিবিরের দিকে আঙুল তুলে কালো টাকা ফেরত আনার দাবি করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী।

আর এরই পেক্ষিতে পাল্টা আক্রমণ করে বসলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। মমতা মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

ভারতীয় নামী গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়, মমতার বক্তব্যের কটাক্ষ করে মুকুল রায় বলেন, মনে হচ্ছে, তিনি তার মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন।

তিনি বিজেপিকে কালো টাকা ফেরাতে বলছেন। অন্যকে, তিনি ২৫ শতাংশ কাটমানি ফেরাতে বলছেন। কিন্তু বাকি, ৭৫ শতাংশ, যেগুলি শীর্ষ নেতাদের পকেটে গিয়েছে, সেগুলির কী হবে? প্রথমে তাদের টাকা ফেরত দিয়ে তারপর অন্যকে বলা উচিত।

মুকুল রায়


রোববার ধর্মতলায় ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে তৃণমূলনেত্রী ঘোষণা করেন, ২৬ জুলাই, কালো টাকা ফেরানোর দাবিতে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচী পালন করবে তার দল। উজালা প্রকল্পের কথাও তুলে ধরে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগেন তিনি।

সরকারি প্রকল্পে সুবিধা দেওয়ার পরিবর্তে উপভোক্তাদের থেকে কাটমানি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে। ‘কাটমানি’র পাল্টা ব্ল্যাকমানির আওয়াজ তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে মুকুল রায়ের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, আমি মনে করি, আমাদের দল এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছে ২০১২-এ, যখন, রেলমন্ত্রী হিসেবে তার নাম সুপারিশ করা হয়েছিল।

বিজেপি নেতা তথা একসময়ে তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কম্যান্ডকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে মন্তব্য করে তৃণমূল মহাসচিব বলেন, ওই পদের উপযুক্ত যোগ্যতা বা ক্ষমতা ছিল না মুকুল রায়ের, তবুও তিনি রেলমন্ত্রী হয়েছিলেন শুধুমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে। পরে আমরা ভুল বুঝতে পারি এবং দল থেকে তাকে তাড়িয়ে দিই। এখন তিনি আরেকটা দলে যোগ দিয়েছেন এবং আমরা নিশ্চিত, তিনি দলটাকে শেষ করবেন।

উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তার দূরত্ব তৈরি হওয়ার কারণে, ২০১৭-এ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন মুকুল রায়।