মালয়েশিয়ার মাল্লাকায় ২০ বাংলাদেশিসহ গ্রেফতার ৯২

প্রকাশিত: 4:06 PM, September 18, 2019 | আপডেট: 4:06:PM, September 18, 2019
ছবি: টিবিটি

শেখ সেকেন্দার আলী, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি: মালয়েশিয়ার প্রাচীন রাজধানী মাল্লাকা অভিবাসন বিভাগের অভিযানে বাংলাদেশীসহ ৯২ জনকে গ্ৰেফতার করেছে ইমিগ্ৰেশন পুলিশ।

মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর মাল্লাকা প্রদেশের জাসিন বেসতারি এবং ডুরিয়ান তুংগালের পৃথক দুটি স্থানে অভিযান চালিয়ে চার দেশের ৯২ জনকে গ্ৰেফতার করে। আটককৃতদের মধ্যে বাংলাদেশের ২০, ইন্দোনেশিয়ার ৬৩, মায়ানমারের ৮ এবং পাকিস্তানের ১জনকে আটক করে।

মাল্লাকা রাজ্য সহকারী ইমিগ্ৰেশন ডিরেক্টর (এনফোর্সমেন্ট চিপ) নার আজমান ইব্রাহিম জানান, আমরা দুটি স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করতে সক্ষম হয়। অবৈধ ভাবে এদেশে অবস্থান কারিদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে আমরূ। শহর থেকে জঙ্গল পর্যন্ত অভিযান চালানো হবে।

তিনি আরো বলেন, অবৈধ অভিবাসীরা যদি সরকারের দেওয়া দেশ ত্যাগে ব্যর্থ হয় তাদের জন্য জেলজরিমানা অবধারিত।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে ইমিগ্রেশন আইনের ১৯৫৯/৬৩ ,৫৫বি(১) ১৯৫৯ ধারায় গ্রেপ্তার করে অভিবাসন বিভাগ।ইতোমধ্যে বহু বিদেশি অভিবাসী যার যার দেশে ফেরত গেলেও গুরুতর অপরাধে ৯ হাজার ৫৩২ জনের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করে অভিবাসন বিভাগ। এসব বন্দিদের সাজা শেষে দেশে ফেরত যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। তবে এদের মধ্যে কতজন বাংলাদেশি রয়েছেন তা জানা যায়নি।

এ দিকে মালয়েশিযার ১৪ টি ইমিগ্রেশন ডিটেনশন ডিপোতে আটক ৯,৫৩২ অবৈধ অভিবাসীদের খাবারের পিছনে প্রতি মাসে ৩.৫ মিলিয়ন রিঙ্গিত ব্যয় করছে বলে জানালেন ইমিগ্রেশনের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল দাজাইমি দাউদ।

পরিচালক বলছেন, ১৪টি ইমিগ্রেশন ডিপোতে আটক এসব অবৈধ অভিবাসীদের এক থেকে দুই মাসের জন্য সেখানে রাখা হয়। সেখান থেকে তাদের নিজ নিজ দেশে ফিরে যেতে তাদের কূটনৈতিক মিশন (দূতাবাস) দ্বারা পরিচয় ও আনুষাঙ্গিক কার্যাদী সম্পন্ন শেষে দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

তিনি আরও বলেন, বুকিত জলিল, কুয়ালালামপুর,কেলআইএ, সেপাং, লেংগিং, নেগরি সেমবিলান, জুরু ও পুলাউ পেনাং ডিপো থেকে আটকদের মধ্যে কিছু অভিবাসীদের দ্রুত যার যার দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

সূত্র জানায়, বিভিন্ন কারাগার ও ক্যাম্পে যারা আটক আছেন, তাদের বেশিরভাগই অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় প্রবেশ কিংবা অবৈধভাবে থাকার কারণে গ্রেফতার হয়েছেন।