মাশরাফির ফিউচার প্ল্যান

প্রকাশিত: ১০:১৩ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৯ | আপডেট: ১০:১৩:অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের পর কোচিংসের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে চান বলে জানিয়েছেন ক্রিকেট তারকা মাশরাফি বিন মর্তুজা। আন্তর্জাতিক সংবাদে সেটা না হরেও ঘরোয়া ক্রিকেটে কোচিং করানোর ইচ্ছা রয়েছেন বলেও জানান অধিনায়ক ম্যাশ।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে পঞ্চ-পাণ্ডবের বিদায়ের পরও পথ হারাবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট। ম্যাশের বিশ্বাস নতুনদের হাত ধরে সফলতার পথেই থাকবে টাইগাররা।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তবে এছাড়াও তার আরেকটি পরিচয় আছে। সব শেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন, ক্রিকেট ক্যানভাসে ১৬ কোটি মানুষকে স্বপ্ন দেখানো মাশরাফি।

১৮ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ার মাশরাফির। নিজেই জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর খুব কাছাকাছি তিনি। এরপর কী? ক্রিকেট পাগল মাশরাফির অবসরের পরের অংশটুকু জুড়েও আছে ক্রিকেট। তবে সেটা ভিন্ন ভূমিকায়।

মাশরাফি বলেন, আমি খেলার সঙ্গেই সম্পৃক্ত থাকতে চাই। যদি কোচিং করানোর সুযোগ থাকে কোচিং করাইতে চাই। সেটা আন্তর্জাতিক লেভেলে নয়। তরুণ প্লেয়ারদের নিয়ে কাজ করতে চাই।

মাশরাফি ছাড়া পঞ্চপাণ্ডবের বাকি সদস্যদের ক্যারিয়ারও এক যুগ পার হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের এই সারথিদের বিদায়ের পর যেন শূন্যতা সৃষ্টি না হয় এ নিয়েও আলোচনা শুরু হয়েছে। তবে সম্প্রতি ত্রিদেশীয় সিরিজে সৌম্য-মোসাদ্দেক-সাইফুদ্দিনরা দেখিয়েছেন তাদের ওপরও আস্থা রাখা যায়। আশাবাদী মাশরাফিও।

মাশরাফি বলেন, যেসব খেলোয়াড় উঠে আসছেন তাদের প্রথম সময়টা কারও জন্যে সহজ কারও জন্যে কঠিন হয়ে যায়। দেখলে বুঝতে পারবেন মুস্তাফিজের জন্য যেমন সহজ হয়েছে আবার লিটনের জন্য অনেক কঠিন হয়েছে। কিন্তু যখন দেখবেনও সফল হওয়া শুরু করবে সেটাই আবার নিয়মিত হতে থাকবে।

টেস্ট ক্রিকেটকে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় বলেননি। তবে বাস্তবতা জানা মাশরাফির। তাই লাল বলে হয়তো আর দেখা যাবে না নড়াইল এক্সপ্রেসকে। মাশরাফি বলেন, এখন ওয়ানডে খেলছি। টেস্ট ক্রিকেটে ফিরে আসা এই মুহূর্তে কঠিন। বয়সও বাড়ছে।