মাস্ক খুঁজতে পাওয়া গেল গাঁজা, ছিনতাইয়ের অস্ত্র

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৫৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১, ২০২০ | আপডেট: ৬:৫৮:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১, ২০২০

রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন দুই যুবক। তাদের কারো মুখে মাস্ক নেই। মুখে মাস্ক না থাকায় তাদের দাঁড় করায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। মাস্ক কোথায় ওই দুই যুবকের কাছে জানতে চান তারা।

মাস্ক ব্যবহার না করার কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের অর্থদণ্ডের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল। কিন্তু এতে তর্ক জুড়ে দেয় ওই দুই যুবক। তাদের আচার-আচরণে সন্দেহ হওয়ায় সঙ্গে ব্যাগ তল্লাশির নির্দেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

ব্যাগ তল্লাশি করে, ইলেকট্রিক সকার, মোবাইলসহ উদ্ধার করা হয় বিভিন্ন জিনিস। সঙ্গে সঙ্গে আটক করা হয় দুই ছিনতাইকারী যুবককে। আর এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে চাঁদপুর শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ।

মঙ্গলবার দুপুর শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুন নাহারের ভ্রাম্যমাণ আদালতে এই ঘটনা ঘটে।

আটক দুই যুবক হলেন গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের বাসিন্দা সোহেব খান ও শাকিব খান।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুন নাহার বলেন, শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে মঙ্গলবার দুপুরে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছিলাম। এ সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার না করায় দুই যুবকে দাঁড় করায় অভিযানে অংশগ্রহণ করা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এতে ওই দুই যুবক তর্ক শুরু করে দেন। তাদের আচরণ সন্দেহজনক লাগলে তাদের সঙ্গে থাকা ব্যাগ তল্লাশির নির্দেশ দিই।

এ সময় ব্যাগ তল্লাশি করে ৫টি মোবাইল সেট, ৪টি মেমোরি কার্ড, ৫টি লাইটার, ১০ গ্রাম গাঁজা, গাঁজা সেবনের কলকি, একটি পাঁচ হাজার ভোল্টের ইলেকট্রিক স্টেনগান (টর্চলাইট সদৃশ) বিভিন্ন রহস্যজনক জিনিস উদ্ধার করা হয়েছে। এসব জিনিসপত্রের কোনো উত্তর দিতে পারেনি তারা। তারা কোনো ছিনতাই চক্রের সদস্য হতে পারে। ইলেকট্রিক স্টেনগান দিয়ে মানুষকে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে তারা ছিনতাই করত। পরবর্তীতে তাদের চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

চাঁদপুর মডেল থানার ওসি মো. নাসিম উদ্দিন বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান থেকে দুই যুবককে আমাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের নিকট থেকে বিভিন্ন জিনিসপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আটক যুবকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই অভিযান চালানো হয়। এ সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার না করার দায়ে ১৬ জনকে ১হাজার ৬শ’ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী ম্যাজিস্ট্রেট।