মির্জাগঞ্জের শ্রীমন্ত নদীর স্রোতে ভেসে গেছে রাস্তাসহ কালভার্ট

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০২০ | আপডেট: ৪:৪৩:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০২০

উত্তম গোলদার, মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের মরহুম ইয়ার উদ্দীন খলিফা সাহেব (রঃ) এর মাজারের দক্ষিন দিকে আমাবস্যার জোয়ের প্রভাবে শ্রীমন্ত নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ও বেগহীন স্রোতের তোপে চর এলাকার ভেসে গেছে বাধঁ ও কালভার্ট। এতে গত এক সপ্তাহ পর্যন্ত প্রতিদিন ভাঙ্গা বাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে দুইবার করে প্লাবিত হচ্ছে। ফলে ভাসছে চর এলাকার লোকবাসী। পানিতে তলিয়ে আছে আউশ ধানের বীজ।

চলাচলের বিকল্প কোন ব্যবস্থা না থাকায় বাধ্য হয়ে ওই এলাকার লোকজন ভাঙ্গা স্থলে রাস্তার উপরে বাঁশের সাঁকো দিয়ে চলাচল করছে এলাকার লোকজন। জোয়ারের প্রভাব কমলেও ক্ষত রয়ে গেছে ওই এলাকায়। এতে চলাচলসহ দূর্ভোগের যেন শেষ নেই তাদের। স্থানীয়রা জানান,অনেক বছর বছর ধরে রাস্তাটি ভাঙ্গা অবস্থায় পরে ছিলো। ভাঙ্গা চোড়া দিয়ে তবুও কষ্ট করে চলাচল করা যেতো। কিন্তু কয়েকদিন আগে জোয়ারের পানিতে একটি কালভার্ট ও রাস্তাটির বিভিন্ন যায়গায় ভেঙ্গে যায়।

এ যেন মরার উপরে খারার ঘাঁ। তারা ক্ষোভের সাথে আরো বলেন,উপজেলার বিভিন্ন সড়ক সংস্কার হলেও এই রাস্তাটি যেন কারও নজরে আসে না। সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তাটি বিভিন্ন স্থানে সম্পূর্ণভাবে ভেঙ্গে নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। ভাসিয়ে নিয়ে গেছে কালভার্ট। রাস্তা বিভিন্ন যায়গায় দেখে মনে হয় ছোট ছোট খালে পরিনত হয়েছে। রাস্তার উপরে চলাচলের জন্য রয়েছে সাঁকো। আর এই সাঁকো দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে এলাকাবাসী। ওই এলাকার ইমরান মল্লিক বলেন,মির্জাগঞ্জ মরহুম ইয়ারউদ্দিন খলিফা সাহেব (রঃ) মাজারের দক্ষিন পাশে চরপারা এলাকার এই রাস্তাটির অবস্থা খুবই শোচনীয়।

মাজার থেকে দক্ষিন মির্জাগঞ্জ গ্রামে প্রবেশের রাস্তা এটি। মির্জাগঞ্জ মাজারের মধ্যবর্তী হওয়ার পরেও দীর্ঘকাল ধরে রাস্তাটিতে অসহনীয় দূর্ভোগ চলছে। এ রাস্তার দু’পাশে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং আবাসিক এলাকা রয়েছে। একাধিকবার এই রাস্তা সংস্কার নিয়ে স্থানীয়রা দাবী জানিয়ে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে এবং সাংবাদিকরাও নিজ নিজ পত্রিকায় ক্রমাগত রিপোর্ট করলেও তাতে দৃষ্টি পড়েনি উর্ধ্বতন কর্তপক্ষের। মাজারের একেবারে অভ্যান্তরে বিধায় জনগুরুত্বের দিক থেকে অবশ্যই রাস্তাটি সংস্কার করা জন্য দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সাব্বির হোসেন ইসমাইল বলেন, জোয়ারের কারেন রাস্তা ও কালভার্টটি ভেঙ্গে যাওয়া খুবই সমস্যা হচ্ছে এলাকাবাসীর। জোয়ারের সময় ভাঙ্গা স্থল দিয়ে পানি ঢুকে ফসলের মাঠাসহ বাড়ি ঘর তলিয়ে যায়। এছাড়াও এই রাস্তাটি দিয়ে এলাকাবাসী সহ ইয়ারিয়া আলিম মাদরাসা,মির্জাগঞ্জ দরগাহ শরীফ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মির্জাগঞ্জ দরগাহ শরীফ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইয়ারিয়া আদর্শ কিন্ডারগার্টেনর কোমলমতি শিক্ষার্থী চলাচল করে। মির্জাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডঃ মোঃ মনিরুল ইসলাম লিটন সিকদার জানান,রাস্তাটি ওই এলাকার জন্য জনগুরুত্বপূর্ন তাই রাস্তাটি সংস্কারসহ ভাঙ্গন প্রতিরোধের জন্য বøক নির্মানের ব্যবস্থার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে।

মির্জাগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী শেখ আজিম উর রশীদ বলেন, জোয়ারের কারনে কালভার্ট ভেঙ্গে গেছে তাই ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করে এর যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।